Skip to content

১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের জন্য মেথি

মেথি; আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় বেশ পরিচিত একটি নাম। অনেক আগে থেকেই বদহজম, দুর্বলতা, পা ফুলে যাওয়ার মতো স্বাস্থ্যসমস্যায় এর ব্যবহার ছিল। রান্নার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবেও পরিচিত মেথি। মেথি গাছের বীজটাই আমাদের কাছে বেশি পরিচিত। স্বাস্থ্য সুরক্ষার পাশাপাশি চুলের যত্নেও ইদানিং এর ব্যবহার বেশ বেড়েছে। চুল পড়ে যাওয়া, ড্যানড্রাফ, হেয়ার ড্যামেজ ইত্যাদি চুলের কমন কিছু সমস্যা। এই সমস্যাগুলো কমাতে মেথি খুব ভালো কাজ করে। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পাওয়ার জন্য মেথি ব্যবহার করা কেন জরুরি এবং কীভাবে ঘরে বসেই এটি দিয়ে সহজে চুলের পরিচর্যা করা যাবে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাবো আজকের প্রতিবেদনে।

ড্যানড্রাফ দূর করতে সাহায্য করে

মেথিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান রয়েছে। পটাশিয়াম, ভিটামিন সি, নিকোটিনিক অ্যাসিড ও লেসিথিন এর খুব ভালো উৎস এই মেথি। ড্যানড্রাফ দূর করতে এই উপাদানগুলো খুব ভালো কাজ করে। এতে আরও আছে ভিটামিন বি ও ডি। ড্রাই স্ক্যাল্পের ইচিনেস রিমুভ করতে এই উপাদানগুলো বেশ কার্যকরী। তাই ড্যানড্রাফের প্রবলেম থাকলে উইকলি হেয়ার কেয়ারে মেথি অ্যাড করে ফেলুন।

চুল পড়া কমায়

হেয়ার ফলিকলে ইনফ্ল্যামেশন হলে চুল ঝরা শুরু হয়। ধীরে ধীরে কমতে থাকে চুলের সংখ্যা। মেথিতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান এই প্রবলেম কমাতে হেল্প করে। রেগুলার মেথি প্যাক ব্যবহারে হেয়ার ফলিকলের ইনফ্ল্যামেশন কমে আসে। এছাড়া এতে থাকা লেসিথিন হেয়ার ফলিকল স্ট্রং করতে হেল্প করে। ফলে চুল পড়া কমতে থাকে।

হেয়ার ড্যামেজ রিপেয়ার করে

চুল ড্রাই হয়ে যাওয়া মানেই ড্যামেজ হেয়ারের লক্ষণ। মেথিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন ও প্রোটিন রয়েছে। এই উপাদানগুলো ড্যামেজ হেয়ার রিপেয়ার করতে হেল্প করে। সেই সাথে চুল রাখে ময়েশ্চারাইজড। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের জন্য মেথি তাই বেশ উপকারী।

হেয়ার গ্রোথ বাড়ায়
মেথি পাউডার ভিটামিন এ, কে ও সি, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, আয়রন ও প্রোটিন এর খুবই ভাল একটি উৎস। এই প্রতিটি উপাদান চুল দ্রুত বড় হতে সাহায্য করে। তাই চুলের দ্রুত বৃদ্ধি করতে চাইলে মেথি ব্যবহার করতে পারেন।

চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ায়

প্রতিদিনের ব্যস্ত জীবনযাত্রায় আমরা অনেকেই চুলের নিয়মিত যত্ন নিতে পারি না। যার কারণে চুল নিষ্প্রাণ হয়ে স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারায়। হেয়ার কেয়ার রুটিনে মেথি যুক্ত করলে এতে থাকা প্রোটিন অল্প সময়ে চুলের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। ন্যাচারাল এই ইনগ্রেডিয়েন্টটি ডিপ কন্ডিশনিং প্রোভাইড করে চুলকে রাখে সফট, স্মুথ ও ম্যানেজেবল রাখে বলে এটি হেয়ার কন্ডিশনার হিসেবেও ব্যবহার করা যায়।

কোন ধরনের চুলে মেথি ব্যবহার করবেন
মেথি সব ধরনের চুলের জন্যই উপকারী। তবে যাদের চুল অনেক বেশি ড্রাই ও ড্যামেজড, তাদের ক্ষেত্রে মেথির ব্যবহারে উপকার পাওয়া যায় সবচেয়ে বেশি। প্রেগনেন্ট অবস্থায় হবু মায়েদের চুল পড়ার সমস্যা কমাতেও মেথি বেশ ভালো কাজ করে। কারণ এটি চুলের গোড়া শক্ত করতে ও হেয়ার ফল কমাতে সাহায্য করে। রেগুলার মেথি দিয়ে তৈরি হেয়ার প্যাক ব্যবহারে চুলে হয়ে ওঠে উজ্জ্বল। আর প্রাকৃতিক উপাদান বলে এটি চুলে ব্যবহার করাও নিরাপদ।

ঘরে বসে মেথি দিয়ে চুলের পরিচর্যা করার উপায়
সরাসরি মেথি পেস্ট করে চুলে না লাগিয়ে হেয়ার কনসার্ন অনুযায়ী প্যাক বানিয়ে ব্যবহার করা ভালো। এক্ষেত্রে মেথি পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। চলুন, জেনে নিই মেথি দিয়ে তৈরি কিছু হেয়ার প্যাক।

ড্যানড্রাফ দূর করতে মেথি ও তিলের তেল এর প্যাক
তিলের তেলে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি ফাঙ্গাল ও অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান। এই উপাদানগুলোর কারণে এই অয়েল ড্যানড্রাফ দূর করতে বেশ ভালো কাজ করে। তিলের তেলে কিছু পরিমাণ মেথি দিয়ে গরম করে নিতে হবে। ঠান্ডা হলে তেলটা ছেঁকে চুলে লাগিয়ে নিন। সপ্তাহে ১ বার এটি ব্যবহার করলে ড্যানড্রাফের সমস্যা অনেকটাই কমে আসবে।

হেয়ার ড্যামেজ রিপেয়ারে মেথি, ক্যাস্টর অয়েল ও আমলার প্যাক
ড্যামেজ হেয়ার রিপেয়ার করতে মেথির উপকারের কথা তো আগেই জানিয়েছি। এবার জানাচ্ছি আমলার ব্যাপারে। আমলাতে আছে প্রচুর পরিমাণে ট্যানিন ও ক্যালসিয়াম। নানা কারণে ড্যামেজ হওয়া চুলের হারানো উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে আমলা। চুলের ময়েশ্চার ধরে রাখতে সাহায্য করে ক্যাস্টর অয়েল। ৩ টেবিল চামচ মেথি পাউডার, ১ টেবিল চামচ আমলা পাউডার এবং ২ টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্টটি স্ক্যাল্পে এক ঘণ্টা লাগিয়ে রেখে ভালোভাবে চুল ধুয়ে নিন। ড্যামেজ হেয়ার রিপেয়ারে এই প্যাকটি খুব ভালো কাজ করে।

হেয়ার কন্ডিশনিং এ মেথি, লেবুর রস ও টক দই এর প্যাক
চুল কন্ডিশনড রাখতে মেথি ও টক দই দুটোই খুব ভালো কাজ করে। আর লেবু চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। ২ টেবিল চামচ মেথি পাউডার, ২ টেবিল চামচ টকদই এবং ১ চা চামচ লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে স্ক্যাল্প থেকে শুরু করে পুরো চুলে লাগান। ২৫-৩০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে নিন। হেয়ার কন্ডিশনড তো হবেই, সেই সাথে চুলের বৃদ্ধিতেও প্যাকটি বেশ ভালো কাজ করবে। যদি দই ব্যবহার করতে না চান, তাহলে শুধু মেথি পাউডারের সাথে পরিমাণমতো পানি মিশিয়েও চুলে ব্যবহার করতে পারেন। চুল সফট ও শাইনি করে তুলতে ইজি এই স্টেপটিও বেশ ভালো কাজ করে।

মেথি বাজারে বেশ সহজলভ্য। তাই দেরি না করে চুলের যত্নে মেথি ব্যবহার শুরু করুন আজ থেকেই।

অনন্যা/নুপুর/

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ