Skip to content

২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আজ ক্রিকেট বিশ্বের এক মহারাজার জন্মদিন! 

গোটা ক্রিকেটজগৎ যদি একটি রাজ্য হয়। তবে সে রাজ্যের রাজা সাকিব আল হাসান।  রাজা নন, মহারাজা। যার সাথে জড়িয়ে আছে বাংলার মানুষের আবেগ। আজ সেই মহারাজার জন্মদিন।  ৩৪ বছরে পা দিলেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।  

১৯৮৭ সালে আজকের দিনে মাগুরা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন এই তারকা ক্রিকেটার। তখনও কে জানতো এই ছোট্ট শিশুটিই একদিন হবে  বাংলার গর্ব, পুরো বিশ্বের ক্রিকেট ভক্তদের আইকন। 

গ্রামাঞ্চলের ক্রিকেট খেলতে গিয়েই একদিন তিনি চোখে পড়ে যান এক আম্পায়ারের। এরপর সেখান থেকে তাকে নিয়ে আসা হয় মাগুরার ইসলামপুর পাড়া ক্লাবে। সেই ক্লাবের হয়ে খেলতে গিয়ে সাকিব প্রথম ম্যাচেই বাজিমাত করেন। প্রথম বলেই তুলে নিয়েছিলেন উইকেট। আর এইভাবেই যাত্রা শুরু হয় এই মহারথীর।  

এরপর মাগুরার পাট চুকিয়ে সাকিব বিকেএসপিতে এসে ভর্তি হন ৬ মাসের কোর্স করার জন্য। এখানে এসেও  খুব দ্রুতই নিজেকে পরিচিত করে তোলেন সাকিব। মাত্র ১৫ বছর বয়সে সুযোগ পান অনুর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে খেলার।  জাতীয় লিগে খেলার জন্য তালিকাভুক্ত হন খুলনা বিভাগীয় দলে।এরপর ২০০৬ সালের জিম্বাবুয়ে সফরে লাল সবুজ জার্সি গায়ে সাকিব প্রথমবারের মত বাংলাদেশ জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পান।

২০০৯ সালে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ওয়ানডে অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠে আসেন সাকিব। এই ধারাবাহিকতায় টেস্টেও নিজের কার্যকারিতা প্রমাণ করে সেরা অলরাউন্ডারের আসন দখল করেন তিনি। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে তিন ফরম্যাটেই সেরা অলরাউন্ডার হন তিনি। যা ক্রিকেট বিশ্বে একমাত্র ঘটনা।

একের পর এক ইতিহাস রচনা করে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করেছেন সাকিব আল হাসান। ক্রিকেট বিশ্বে সাকিব একজনই। এতো বছরেও তৈরি হয়নি তার মতো কেউ। আরো বহুবছর বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করবেন সাকিব আল হাসান, তার জন্মদিনে এমনি প্রত্যাশা। শুভ জন্মদিন মি. অলরাউন্ডার।