Skip to content

২২ মে, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কেমন আছে বাড়ির ছোট সদস্যটি?

বাড়ির ছোট সদস্য সব সময় মা-বাবার আদরের। শুধু মা-বাবার নয়, বাড়ির প্রতিটি সদস্যের আদরের। কিন্তু এর পরও অনেক সময় দেখা যায়, শিশুটির আচার-আচরণে পরিবর্তন। এই পরিবর্তন কেন হয়?

শিশুর বিকাশে বাধা নানা কারণে হতে পারে। এর একটি হলো, মা-বাবার সম্পর্কের তিক্ততা। ছোট শিশুটা যখন মা-বাবার সম্পর্কের তিক্ততা দেখে, সে মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তার মাথায় সব সময় মা-বাবার ঝগড়াঝাঁটিই ঘুরপাক খায়। ফলে শিশুটির মানসিক বিকাশে বাধা পড়ে।

এ-ছাড়া, অনেক সময় শিশুদের বাইরে খেলতে যেতে দেওয়া হয় না। ঘরবন্দী থাকতে হয় শিশুটিকে। ঘরে শিশুকে হাজার খেলনা এনে দিলেও তার মনে বাইরে না-যেতে পারার কষ্ট থাকে। সে মুখ ফুটে না বললেও তার মাথায় বাইরে যাওয়ার কথাই থাকে। এতে করে দেখা যায়, শিশুর মানসিক বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয়। 

পরিবারে মা-বাবা ছাড়া আরো অনেকে থাকে, তারাও প্রায় সময় নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। তাদের এই ব্যস্ততার ফলে শিশুটি পর্যাপ্ত যত্ন পায় না। আবার অনেক সময় দেখা যায়, এক শিশু অন্য শিশুকে বলে, তার মা-বাবা ও পরিবারের সদস্যরা তাকে সময় দেয়, তাকে আদর করে- এ-সব শুনে শিশুর নিজের পরিবারের মানুষ থেকেও একই আদর-ভালোবাসা পেতে ইচ্ছে করে। কিন্তু তা সে পায় না। ফলে তার আচরণে পরিবর্তন আসে।

একটি শিশুর আচরণ হঠাৎ করে পরিবর্তন হয় না, সময় লাগে। যদি পরিবার শিশুর পরিবর্তনটা বুঝতে পারে, তাহলে সে-অনুযায়ী একটা সমাধান বের করতে পারে। কিন্তু পরিবারের সবাই অনেক সময় এতই ব্যস্ত থাকে যে, শিশুর পরিবর্তন তাদের চোখে পড়ে না। কখনো-সখনো চোখে পড়লেও তারা শিশুটির সাথে খারাপ আচরণ করে। যা একটি শিশুকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে দেয়।

ANANNYA DESK