Skip to content

২০শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ৫ই ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নিঠুর বাস্তবতা

উড়ন্ত দিনের পড়ন্ত বিকেলে ঠিক হলুদ সূর্যের পরে
যখন পাখিরা নিজ নিজ নীড়ে ফিরে
গোধূলির বেলা এক পশলা বৃষ্টির ভিড়ে
আমি খুঁজেছি তখনো-অন্ধকারে হৃদয় কুঠিরে।

যখন আশারা দু’হাত বাড়িয়ে আমাকে ডেকেছে আরো দূরে
তখন আধারে তোমাকে দেখেছি জোনাকির আলো জ্বেলে
তখনো অনেক দূরে, অনেক অনেক দূরে-বহুদূরে
অথচ বেলী হাসনাহেনার গন্ধ ম্লান হয় যেন তোমারই গন্ধে।

আহা! পারিজাত অনুভূতি, হৃদয়ের পত্র বল্লবের দোল
ঠিক বাতাসের দোলনীতে দোলে যেমন সমুদ্র ঢেউ
তেমনি কবোষ্ণ বুকে সফেদ ফেনার মতো প্রেম
সমুদ্রের মতো করে হৃদয়ের তীরে হয়েছিল জমা।

জীবন পাতায় আরো কত শত শত স্মৃতি হয়েছে বিস্মৃতি
তবু সময়ের ধুলা মাঝে মাঝে ভিজে যায়, বৃষ্টির নোনতা জলে
শত শত স্মৃতি পুড়ে পুড়ে হয় ইট
সেই সব পোড়া ইটে অট্টালিকা গড়ে আমার নিঠুর বাস্তবতা।
তবু স্মৃতির গভীর থেকে মাঝে মাঝে হেঁটে আসে,
ভেজানো কিছু সময়, কোন এক জোছনা মাখানো পূর্ণিমার রাতে
যেন সদ্য ফোটা পারিজাত ঘ্রাণে।আহা!

অনন্যা/এসএএস