Skip to content

১লা মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ১৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গ্রীক ইতিহাসের এক হিংস্র চরিত্র অলিম্পিয়াস

অলিম্পিয়াস প্রাচীন গ্রিসের একজন উচ্চাভিলাষী ও হিংস্র শাসক ছিলেন। তিনি উত্তর পশ্চিম ভারত পর্যন্ত সাম্রাজ্য বিস্তারকারী আলেকজান্ডার দ্যা গ্রেট ও এপিরাসের রানী ক্লিওপেট্রার মাতা ছিলেন। আলেকজান্ডার সবসময় মায়ের কথামতো চলতেন। মায়ের পরামর্শ ছাড়া কোন কাজই করতেননা আলেকজান্ডার। ছেলের জন্য রাজ্য নিশ্চিত করতে তিনি অনেক রক্ত ঝরিয়েছেন। অলিম্পিয়াস ছিলেন খুনে, প্রতিহিংসাপরায়ণ ও সাহসী প্রথম নারী যিনি প্রাচীন গ্রীক রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন।

 

গ্রীক ইতিহাসের এক হিংস্র চরিত্র অলিম্পিয়াস

 

খ্রীষ্টপূর্ব ৩৭৫ অব্দে অলিম্পিয়াসের জন্ম। তার পিতা প্রথম নিওপ্তলেমাস ছিল এপিরাসের রাজা। ম্যাসিডনের আর্গিয়াদ রাজবংশের রাজা দ্বিতীয় ফিলিপের চতুর্থ স্ত্রী ছিলেন তিনি। অলিম্পিয়াসের আসল নাম ছিল পলিক্সেনা। নিজের নাম পরিবর্তন করে তিনি রেখেছিলেন মার্তালে। পরবর্তীতে বিবাহের পর ৩৫৬ খ্রিস্টপূর্বাব্দে রাজা দ্বিতীয় ফিলিপের জয়ের পর জয়ের পরে তিনি নিজের নাম রাখেন অলিম্পিয়াস। এই বছরই তিনি আলেকজান্ডারের জন্ম দিয়েছিলেন। বছরের পর বছর তিনি সবাইকে এটা বুঝিয়েছেন যে আলেকজান্ডার দেবগণ ও মানবজাতির পিতা জিউসের সন্তান।

 

গ্রীক ইতিহাসের এক হিংস্র চরিত্র অলিম্পিয়াস

 

দ্বিতীয় ফিলিপের বহুগামিতা ও তার প্রতি সন্দেহ প্রবণতার কারণে স্বামীর সাথে সম্পর্ক সুখকর ছিল না অলিম্পিয়াসের। সম্পর্কের আরো অধঃপতন ঘটে যখন আবার বিয়ে করেন। অলিম্পিয়াসের বিয়ের ২০ বছর পর রাজা ফিলিপ তার সেনাপতির ভ্রাতুষ্পুত্রী ক্লিওপেট্রা ইউরিদিকেকে বিয়ে করেন। এই বিয়ের কারণে রাজ্যের উত্তরাধিকার নিয়ে সংশয়ে পড়েন ক্লিওপেট্রা। ক্লিওপেট্রার সন্তানের সিংহাসনের উত্তরাধিকারী হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি ছিলো। কারণ এই সন্তান বাবা-মা উভয়ের দিক থেকেই মেসিডোনিয় হতো। ফলে সিংহাসনের উত্তরাধিকারী হিসেবে আলেকজান্ডারের অবস্থান কিছুটা অরক্ষিত হয়ে পড়ে। জানা যায়, পরবর্তীতে ক্লিওপেট্রা ইউরিদিদি ও তার দুই ছেলেমেয়েকেই হত্যা করেছিলো অলিম্পিয়াস। কেবল তারাই নয় সিংহাসনের দাবিদার কোন উত্তরাধিকারীকেই জীবিত রাখেনি এই নারী। বিষ খাইয়ে, আগুরে পুড়িয়ে অথবা অন্য কোন উপায়ে হত্যা করেন সবাইকে, যারা আলেকজান্ডারের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল। এমনকি স্বামী ফিলিপের হত্যার পিছনেও ছিল এই নারী। তাদের মেয়ে ক্লিওপেট্রার বিয়ের দিন তার দেহরক্ষীবাহিনীর হাতে খুন হন রাজা দ্বিতীয় ফিলিপস। এছাড়াও অলিস্পিয়াস তার বিরোধকারী অসংখ্য নেতা ও সৈনিককে হত্যা করেছেন। অবশ্য আলেকজান্ডারই পরে সিংহাসনে বসেছিলো। 

 

গ্রীক ইতিহাসের এক হিংস্র চরিত্র অলিম্পিয়াস

 

ইতিহাসের হিংস্র এই নারীর শেষ পরিণতিও সুখকর ছিলোনা। আলেকজান্ডরের মৃত্যুর কিছু বছর পরে রাজনৈতিক কারণে কাসান্দার পুরো শহর অবরোধ করে অলিম্পিয়াসকে বন্দি করে ও মৃত্যুদণ্ড দেয়। কিন্তু মৃত্যুদণ্ড কার্যকর সম্ভব হয়না। সৈনিকরা তাদের রাজা মহান আলেকজান্ডারের মাতাকে হত্যা করতে অস্বীকৃতি জানায়। জনা যায়, শেষ পর্যন্ত অলিম্পিয়াসের দ্বারা নিহতদের ও ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবার পাথর ছুঁড়ে হত্যা করে তাকে। তার সমাধি সম্পর্কে সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি। এটিই ছিল প্রাচীন গ্রীসের এই নারী খলনায়কের শেষ পরিণতি।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ