Skip to content

৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভিন্ন আয়োজনে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার!

প্রতিবছর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার নিয়ে উৎকণ্ঠায় থাকে সাধারণ দর্শক থেকে শুরু করে শিল্পী মহলও । প্রতিবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে পুরস্কার নেওয়ার জন্য তাই  প্রতিবারই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীরা। কিন্তু এ বছর করোনা মহামারীর জন্য প্রতিবারের তুলনায় ভিন্ন আয়োজনে পালিত হচ্ছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের আসর। 

আজ রোববার সকাল ১০টায় ঢাকার আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৯-এর আসর। তবে মহামারির কারণে সীমিত পরিসরে আয়োজন করা হচ্ছে এবারের অনুষ্ঠান। এবার ২৬টি শাখায় শিল্পী, কলাকুশলী, প্রতিষ্ঠান ও চলচ্চিত্রকে এ পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। যৌথভাবে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে অভিনয়শিল্পী সোহেল রানা ও সুচন্দাকে।

এবছর প্রধানমন্ত্রীর পরিবর্তে শিল্পীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। এ সময় মঞ্চে উপস্থিত থাকবেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী মো. মুরাদ হাসান ও তথ্য সচিব খাজা মিয়া। তবে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুরষ্কার না নিতে পারায় আফসোস করছেন পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীরা। 

 

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের সাংস্কৃতিক আয়োজনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে রয়েছেন বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক এস এম হারুন-অর-রশীদ। পুরস্কার প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সমন্বয় করছেন মাহবুবা ফেরদৌস। 

 

অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করবেন অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা ও অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন। অনুষ্ঠানটি শুরু হবে সাদিয়া ইসলাম মৌয়ের সাত মিনিটের একটি নৃত্যানুষ্ঠান দিয়ে আর শেষ হবে ওয়ার্দা রিহাবের পরিবেশনা দিয়ে। এর মধ্যে চলচ্চিত্রের একাধিক গানের সঙ্গে নৃত্যে অংশ নেবেন ফেরদৌস, অপু বিশ্বাস, মাহিয়া মাহি, সাইমন ও নুসরাত ফারিয়া। গান গাইবেন অলোক সেন, অপু আমান, লিজা ও লুইপা।