Skip to content

২১শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কবিতা

মেঘের ভেলা
কালো কালো মেঘের ভেলা নীল আকাশের গাঁয়,
উরু উরু মেঘগুলো কোনসে দূরে যায়।
মেঘের ভেলা দেয়যে দোলা বৃষ্টি নামে ভারি,
দেওয়া ডাকে দেওয়া ডাকে দিচ্ছে দূরে পারি।

মেঘ গুরগুর মেঘ গুরগুর বৃষ্টি দিনের গান,
রাখাল ছেলে বাড়ি ফিরে দুরুদুরু টান।
টাপুর টুপুর ঝম ঝম টিপ টাপ বৃষ্টি,
এমনি ভাবে ঝরতে থাকে উতলা বর্ষার দৃষ্টি।

মাঠ ঘাট খাল বিলে জল থৈথৈ করে,
ছেলে মেয়ে খুশি হয়ে কলার ভেলায় চড়ে।
উরু উরু মেঘগুলো ভেসে ভেসে যায়,
বিজুলী নাচে বিজুলী নাচে ধানশালিকের গাঁয়।


মেঘের রানী বৃষ্টি
নীল আকাশে ডানা মেলে
একটা মেয়ে ভাসে,
ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি এলো
নেচে নেচে হাসে।

কী অপরূপ দেখতে সে
স্বচ্ছ জলের কোণা,
চুলগুলো তার উরু উরু
ঝরছে মেঘের কন্যা।

বর্ষাঋতুয় মেঘের রানী
নামে আকাশ ফুঁড়ে,
টাপুর টুপুর বৃষ্টি পড়ে
সারাদেশ জুড়ে।


ঝিরিঝিরি ওই বৃষ্টি
টিপটিপ বৃষ্টি অঝরে ঝরছে
বৈরী হাওয়া বাহিরে বইছে,
গাল ফুলিয়ে ব্যাঙ ডাকে
মেঘ ডাকে আকাশের বুকে ।

কদম কেয়া কুটি কুটি হাসে
দূর আকাশে বিজুলী নাচে,
মন টিকে না একলা ঘরে
দুই এক পাও বাড়ায় নড়ে ।

রাস্তাঘাটে জমেছে কাদা
ছাগল ছানা উঠানে বাঁধা,
হাঁসগুলো ওই সাঁতার কাটে
কৃষক ফিরে থেকে মাঠে।

ওই উড়ে যায় ওই উড়ে যায়
একটু ফিরে আমায় চায়,
হলুদ সাদা মেঘের পরী
রঙতুলিতে কিভাবে ধরি ।

মেঘগুলো ওই ছুটছে
রঙধনু রঙ সেজেছে,
ঝিরিঝিরি ওই বৃষ্টি-
কেড়ে নেই সবার দৃষ্টি ।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ