Skip to content

৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছায়া তুমি

ছায়া তুমি খরা ফাটা জমির মতো নিজেকে করে ব্যবচ্ছেদ
আমাকে ভেদ করে গেলে এক্সরে প্লেটের ওপর
অন্ধকার ঘরে ছবির ওপরে সন্ধিবদ্ধ যেমন হাড়ের সাথে জুড়ে জুড়ে থাকে হাড়
করোটিতে লেগে ছিলো, লেগে আছে ঐতিহাসিক কতো ক্ষত, চিহ্ন-অত্যাচার। 

 

রক্ত-মাংসে-মজ্জায় সেসবই, সইতে সইতে এসে আজ
মাথার ওপর অপার করুণা, বাকিটা অনুল্লেখ
বোচকা থেকে বেরিয়ে আসে, যুদ্ধে পরাহত সৈনিকের,মায়ের শতচ্ছিন্ন কাপড়
কঙ্কালের মতো মানুষের মটকে যাওয়া যত ঘাড়
কে কবে কোথায় আর খবর রেখেছে তার। 

 

শূন্যে ফুরফুরে বাতাসের মতো মেজাজ
দূরে দূরে থাকে, ঘুরেফিরে আমাদের কিন্তু কোথাও কোনোদিন হয়না বিচ্ছেদ
কারণ তোমার হৃৎপিণ্ড আমার হৃৎপিণ্ড খণ্ড খণ্ড দুটো বদ্বীপের মতো
দু-টুকরো আকাশকে রেখেছে ঝুলিয়ে
দুই পৃথিবী এসে যাতে মিলতে পারে মশাল হাতে প্রণামের মতো সূর্যের পায়ে নত হয়ে।