নারীদের সেবায় ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’

নারীদের সেবায় ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’
সংগৃহীত
দেশের নারীরা প্রায়ই নানা অপরাধের শিকার হচ্ছেন। এরমধ্যে ৬৮ শতাংশ নারীরা সাইবার অপরাধেই শিকার হচ্ছেন। নারী ভুক্তভোগীদের এসব অপরাধ থেকে সহায়তা দিতে চালু করা হয়েছে ‘সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’।

দেশে নানান অপরাধের সাথে বাড়ছে ভার্চুয়াল জগতে সাইবার অপরাধ। ভার্চুয়াল জগতে যাতে নারীরা অপরাধের শিকার না হন তাই নারীদের সহায়তার জন্য ‘সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’ সেবা চালু করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। 

১৬ নভেম্বর রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে ‘সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’ সেবার উদ্বোধন করেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। এ সেবা পরিচালিত হবে পুলিশের সদর দপ্তরের এলআইসি শাখার অধীনে। 

দেশের নারীরা প্রায়ই নানা অপরাধের শিকার হচ্ছেন। এরমধ্যে ৬৮ শতাংশ নারীরা সাইবার অপরাধেই শিকার হচ্ছেন। সাইবার অপরাধে এ পর্যন্ত ছয় হাজারের বেশি মামলা হয়েছে। যার মধ্যে নারীরা অধিকাংশ ভুক্তভোগী। নারী ভুক্তভোগীদের এসব অপরাধ থেকে সহায়তা দিতে চালু করা হয়েছে ‘সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’।

সাধারণত আমাদের দেশে ১৬ থেকে ২৪ বছরের নারীরা সাইবার অপরাধে সবচেয়ে বেশি ভিকটিম হয়। যেসব নারীরা সাইবার বুলিং, আইডি হ্যাক, স্পর্শকাতর তথ্য-ছবি-ভিডিও প্রকাশ, সাইবার জগতে যৌন হয়রানি ইত্যাদির শিকার হচ্ছেন শুধু তারাই অভিযোগ জানাতে পারবেন। ভুক্তভোগীর নিরাপত্তার সার্থ্যে তাঁর সকল তথ্য গোপন রেখে প্রয়োজনীয় সেবা এবং আইনি সহায়তা দেবেন পুলিশ।

সাইবার অপরাধে ভুক্তভোগী নারী দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে শুধুমাত্র ৯৯৯-এ কল দিয়ে পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে তার সমস্যার কথা জানাতে পারবেন। বাংলাদেশ পুলিশ সাইবার ওয়ার্ল্ডকে নিরাপদ রাখতে চান।