Skip to content

২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আলো

‘আলো আমার আলো ওগো, আলো ভুবন ভরা
আলো নয়ন-ধোয়া আমার, আলো হৃদয়-হরা।
‘কবিগুরুর আলোর গানে হৃদয়ে দেয় নড়া
এই ভুবনে মানবজীবন আলোতে হোক গড়া।

আলো মানে দীপ্তি, প্রদীপ, প্রভা, উজ্জ্বলতা
এই আলোকে ব্যবহারের আছে অনেক প্রথা।
সন্ধ্যাবাতি, মঙ্গলপ্রদীপ, মোমবাতি কী বলে?
মহান প্রভুর কৃপা পেতে উপাসনায় জ্বলে।

আলোকচিত্র, আলোকোজ্জ্বল, আলোকসজ্জা মানে?
আলোকসম্পাত, আলোছায়া, হরষ জাগায় প্রাণে।
আলোকরশ্মি, আলোকশক্তি, দিশার আলোকস্তম্ভ
আলোকবিজ্ঞান, আলোকবর্ষের, আলোয় হতভম্ব।

আলো আছে নানারকম নিত্য লাগে কাজে
চন্দ্র, সূর্য, তারার আলো বিমল সবার মাঝে।
কুপিবাতি, হারিকেন টর্চ, আঁধারে দেয় জ্যোতি
আলো পেতে ব্যবহার হয় ম্যাচ, দেশলাই অতি।

সার্চ, এলইডি, সিএফএল, টিউব, সোডিয়াম…
হ্যালোজেন, ফ্লোরোসেন্ট আরো কতো নাম।
হ্যাজাকবাতি, নিয়নবাতি, ঝাড়বাতি, ডিম, টুনি…
আলো দিতে আরও অনেক বাতির কথা শুনি।

আলো আবার আলেয়া হয়, মন পোড়ানো চিতা
সতী নারীর পরীক্ষা দেন, এই আলোতেই সীতা।
আলো নামের আগুন ঘটায় ভয়াল অগ্নিকাণ্ড
আলোয় পোড়ে ছাই হয়ে যায় কত ধনের ভাণ্ড!

মেঘে-মেঘে ঘর্ষণে হয়, আলোর বজ্রপাত
আগ্নেয়গিরির আলোয় আবার ঘটে অগ্ন্যুৎপাত।
আলোর তেজে সাম্রাজ্যবাদ, পাষাণ করে মন
বানায় হাজার বুলেট, বোমা, ঘটায় কতো রণ!

গর্বে জ্বলে আলোর প্রদীপ শিখা চিরন্তন…
আলোতে হয় মশালমিছিল আলোর করে পণ।
সকল আলো করতে আলো জ্ঞানের আলো জ্বলুক
দীপ্ত শপথ নিয়ে সবাই আলোর পথে চলুক।