বাঁশের তৈরি ব্যাট প্রত্যাখ্যান করল এমসিসি 

বাঁশের তৈরি ব্যাট প্রত্যাখ্যান করল এমসিসি 
বাঁশের তৈরি ব্যাট প্রত্যাখ্যান করল এমসিসি 
এমসিসির ক্রিকেট আইনের ৫.৩.২ ধারায় বলা হয়েছে ব্যাট কেবল উইলো বা কাঠের তৈরি হতে হবে। তাই, বাঁশের তৈরি ব্যাটকে প্রত্যাখান করেছে এমসিসি। 

সাম্প্রতিক বাঁশের ব্যাট তৈরি করে ক্রিকেট মহলে  বেশ আলোড়ন তৈরি করেছে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়।  তবে, বাঁশের তৈরি এই ব্যাট আইন অনুযায়ী নিষিদ্ধ বলে জানিয়েছে ক্রিকেটের আইন প্রণয়নকারী সংস্থা মেরিলিবোর্ন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)। 

 

উইলো বা কাঠের পরিবর্তে বাঁশ দিয়ে তৈরি করা ব্যাটকে সরাসরি না করেছে ক্রিকেটের আইন প্রণয়নকারী সংস্থা । এমসিসি বলেছে, বর্তমান আইন অনুযায়ী বাঁশের তৈরি ব্যাট ‘অবৈধ’। আইন অনুযায়ী ব্যাট কেবল মাত্র কাঠ দিয়েই তৈরি হতে পারে এবং পেশাদার ক্রিকেটে উইলো বা কাঠের বাইরের উপাদান দিয়ে তৈরি সকল ধরনের ব্যাট আইনত নিষিদ্ধ।

 

উইলো বা কাঠের তৈরি ব্যাটের চেয়ে বাঁশের তৈরি ব্যাটকে আরো বেশী কার্যকর এবং টেকসই বলা হয়েছে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায়।  গবেষক দলের অন্যতম সদস্য দার্শিল শাহ ইংলিশ পত্রিকা গার্ডিয়ানে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, "উইলোর তৈরি ব্যাট থেকে বাঁশের তৈরি এ ব্যাট বেশ ভঙ্গুর হলেও ব্যাটগুলো বেশ শক্ত এবং শক্তিশালী। "বাঁশের তৈরি ব্যাট সাধারণ ব্যাটের থেকে বেশ ভারী। তবে, আমরা এ ব্যাটকে ক্রিকেটারদের জন্য উপযোগী করতে আরো কাজ করছি। 

 

এমসিসির ক্রিকেট আইনের ৫.৩.২ ধারায় বলা হয়েছে ব্যাট কেবল উইলো বা কাঠের তৈরি হতে হবে। তাই, বাঁশের তৈরি ব্যাটকে প্রত্যাখান করেছে এমসিসি। 

 

বাঁশের তৈরি ব্যাট প্রত্যাখান করলেও এ ধরনের পরীক্ষাকে স্বাগত জানিয়েছে এমসিসি। তারা বলছে, কাঠের বিকল্প হিসেবে এই ধরনের ব্যাট তৈরির চিন্তাভাবনাকে বিবেচনা করা হবে।