Skip to content

২৮শে জুন, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১৪ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কাঁদে গহীন বন

সবুজ-শ্যামল বৃক্ষ-লতায় বিশ্ব ছিল ছেয়ে
ফুল-পাখিদের গাইতো সাথে গাঁয়ের চপল মেয়ে।
বনের হরিণ তরুলতা মুগ্ধ সোনারূপেে,
নূপুর পায়ে দখিন হাওয়ায় নাচতো চুপে চুপে।।

গগন, বহ্নি, নিঝর, সরিৎ অদ্রি-তলার বন
এই ছিল তার সবই আপন বুঝ্ত মেয়ের মন।
হঠাৎ মানব জয়ের নেশায় চড়লো আকাশ রথে,
অজানা এক দুঃখ এসে টানলো দুরের পথে।

দিনে দিনে করলো সাবাড় কেটে গহীন বন
দুর্যোগেরই ঘনঘটা কাঁদায় মেয়ের মন।
কুস্তরী সেই হরিণ-বালা উদাস হয়ে ফিরে,
বনহারা সব বনের পাখি কাঁদে নিঝর তীরে।

মানবজীবন অসহায় হলো নির্মমতার শাপে
ধ্বংসলীলার মত্ত খেলায় বসুমাতা কাঁপে।
বসুমাতার সাথে কাঁদে চপল মেয়ের মন।
সব হারিয়ে গহীন বিপিন কাঁদে সারাক্ষণ