Skip to content

২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফের যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর গদিতে নারী

যুক্তরাজ্যে ব্রেক্সিট বাস্তবায়িত হওয়ার পর থেকে দেশটিতে বিভিন্ন খাতে বিশেষ দৃষ্টিকোণ দেওয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যের বিশেষ একটি দপ্তর হচ্ছে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। বিশ্বকে শাসন করা এই দেশটি বরাবরই পররাষ্ট্র নীতিতে অধিক রক্ষণশীল। সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভূমিকায় দ্বিতীয়বারের মত ফের নারী মুখ সংযোজিত হলো।

 

যুক্তরাজ্যের মন্ত্রীসভায় ব্যাপক রদবদল এনেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাবকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। বুধবার নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী করা হয়েছে ৪৬ বছর বয়সী লিজ ট্রাসকে। ১৫ বছর পূর্বে দেশটির প্রথম নারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছিলেন লেবার পার্টির মার্গারেট বেকেট।

 

সংসদে অল্প সময়ে ইতোমধ্যে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেয়েছেন লিজ ট্রাস। নতুন ভূমিকা অবশ্য চ্যালেঞ্জিং হবে তার জন্য। কারণ সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাবকে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যেই দায়িত্ব থেকে সরানো হয়েছে। সম্প্রতি আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার এবং বেসামরিক নাগরিকদের সরিয়ে নেয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ছুটিতে ছিলেন ডোমিনিক রাব। যে বিষয়টি ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেয়।

 

ট্রাস এর আগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। ব্রেক্সিট পরবর্তী অধ্যায়ে সাফল্যের সঙ্গে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সংক্রান্ত দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। বুধবার যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিটে নতুন এই দায়িত্ব বণ্টন করা হয়।

 

কাজের মঞ্চে ট্রাস তাকে তুলে ধরতে পারবে এ আশা সকল ব্রিটিশ নাগরিকের। তবে প্রশ্ন একটাই অতীতের ইতিহাস কি পুনরাবৃত্তি হবে নাকি ব্রিটিশ পররাষ্ট্রনীতি তাদের উচ্চতা ফিরে পাবে?