একাধিক বিয়ের অনুমতি পেতে যাচ্ছেন নারীরা

একাধিক বিয়ের অনুমতি পেতে যাচ্ছেন নারীরা
ছবি: সংগৃহীত
ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের হার কমিয়ে আনার জন্য বিবাহ আইনে এমন পরিবর্তন আনতে চলেছে। ইতোমধ্যেই নারী-পুরুষের বহুবিবাহের বৈধকরণে ৬৭ পৃষ্ঠার গ্রিন পেপার তৈরি করা হয়ে গেছে। আগামী জাতীয় সংসদের অধিবেশনে বিষয়টি উত্থাপিত হবে এবং সংখ্যাগরিষ্ঠের ভোটে পাস হলে আইনটি বাস্তবায়নে গেজেট প্রকাশ করা হবে। 

বিবাহ আইন সংশোধন করে নতুন করে নারীদের একাধিক বিয়ের অনুমতি দিয়ে নতুন আইন প্রণয়ন করতে যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা। একইসাথে পুরুষরাও একাধিক স্ত্রী রাখার অনুমতি পাবেন। 

 

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের হার কমিয়ে আনার জন্য বিবাহ আইনে এমন পরিবর্তন আনতে চলেছে। ইতোমধ্যেই নারী-পুরুষের বহুবিবাহের বৈধকরণে ৬৭ পৃষ্ঠার গ্রিন পেপার তৈরি করা হয়ে গেছে। আগামী জাতীয় সংসদের অধিবেশনে বিষয়টি উত্থাপিত হবে এবং সংখ্যাগরিষ্ঠের ভোটে পাস হলে আইনটি বাস্তবায়নে গেজেট প্রকাশ করা হবে। 

 

গ্রিন পেপার তৈরির সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. অ্যারন মোটসোলেদী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, দেশের সনাতন নেতা, ধর্মীয় নেতা, শিক্ষাবিদ, নারী নেতা এবং মানবাধিকার কর্মীদের স্বতন্ত্র উপস্থিতি ছিলো৷ এই আইন কার্যকর হলে দক্ষিণ আফ্রিকার নারীরা একাধিক বিয়ে করতে পারবেন এবং পুরুষরা একাধিক স্ত্রী রাখতে পারবেন। 

 

অতীতে যেমন ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী বিয়ে বলে এ বিষয়ে আইনি বিধিমালা মানা হত না। এতে বিয়ে ও ডিভোর্সের আইনি স্বীকৃতি নিয়ে সমস্যা হত। তাই এই আইন নারী ও পুরুষের একাধিক স্বামী বা স্ত্রী রাখার ক্ষেত্রে কোনোরকম আইনি ঝামেলা পোহাতে হবে না। এবিষয়ে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  মনে করেন, এই আইন দেশে  নারী পুরুষ সমতা সৃষ্টি করেত সক্ষম হবে।