Skip to content

২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছেলেদের কোচের দায়িত্ব হলেন সারাহ টেইলর

নারীর বিশ্ব জয়ের সূচনা বহু আগেই হয়ে গেছে। এখন একের পর এক সফলতা দিয়ে ইতিহাস রচনার পালা।

 

ক্রিকেটের মাঠে সারাহ টেইলরের নাম বেশ আগেই লিপিবদ্ধ হয়ে গেছে। মেয়েদের ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা কিপার-ব্যাটারদের একজন বলে যার খ্যাতি রয়েছে। এবার নারী ক্রিকেটের সীমানা ছাড়িয়ে তিনি ইতিহাস গড়তে যাচ্ছেন ভিন্ন এক ভূমিকায়। সাসেক্সের ছেলেদের দলের সহকারী কোচ হিসেবে যোগ দিচ্ছেন ইংল্যান্ডের সাবেক এই ক্রিকেটার।

 

ইংল্যান্ডের নিউজ সূত্র মতে, ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটের সুদীর্ঘ ইতিহাসে ছেলেদের মূল দলে এই প্রথম বিশেষজ্ঞ কোচ হিসেবে কাজ করবেন একজন নারী।

 

সহকারী কোচ হিসেবে টেইলর কাজ করবেন মূলত কিপিং নিয়ে। সবসময়ের সেরা কিপারদের তালিকায়ও রাখা হয় তাকে। পাশাপাশি প্রয়োজনে দেখভাল করবেন ব্যাটিংও। ইংল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার ৭ সেঞ্চুরিতে প্রায় সাড়ে ৬ হাজার রান আছে তার।

 

মাত্র ৩১ বছর বয়সের টেইলরের কথা ছিল সব ঠিক থাকলে এখনও খেলা চালিয়ে যাওয়ার। উইকেটের সামনে-পেছনে পারফরম্যান্সও ছিল দুর্দান্ত। কিন্তু দীর্ঘদিন মানসিক অবসাদের সঙ্গে লড়াই করে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে তিনি বিদায় জানান ক্রিকেটকে।

 

এরপর একটি স্কুল দলের কোচ হিসেবে কাজ করছিলেন টেইলর। গত মাসেই একটি সাক্ষাৎকারে জানান, ক্রিকেটে ফেরার সম্ভাবনা এখনও শেষ হয়ে যায়নি। তিনি ফিরলেন বটে, তবে নতুন চমক নিয়ে।

 

সাসেক্সের প্রধান কোচ জেমস কার্টলি জানান, তার দলে অনেক কিছুই যোগ করতে পারেন টেইলর।

ক্রিকেটারদের ছাড়াও, দলের আবহের জন্যও সারাহর অনেক কিছু দেওয়ার আছে। উইকেটকিপিংয়ে সে দারুণ দক্ষ, কিন্তু ব্যক্তি হিসেবেও দলে যোগ করবে অনেক কিছু । কোচ হিসেবে নতুন ভাবনার খোরাক জোগাবে এবং যোগাযোগের ক্ষেত্রে অসাধারণ সারাহ।

 

টেইলর নিজেও আগ্রহভরে তাকিয়ে আছেন ক্যারিয়ারের এই নতুন অধ্যায়ের দিকে।

 

সারাহর ভাবনায়, “ সাসেক্সে দারুণ প্রতিভাবান একদল কিপার আছে আমাদের এবং যাদের সঙ্গে কাজ করতে তিনি মুখিয়ে আছেন। তাদের সেরাটা বের করে আনতে নিজের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা তিনি ভাগাভাগি করে নিতে চান বলে জানান । সবকিছু সহজ রাখা ও মৌলিকত্বকে নিখুঁত করে তোলায় বিশ্বাসী সারাহ, যাতে ছেলেরা গ্লাভস হাতে উপভোগ করতে পারে এবং নিজেদের মেলে ধরতে পারে তার জন্য কাজ করবেন।