Skip to content

২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সেনাবাহিনীর চিকিৎসা প্রশাসনে দেশের প্রথম নারী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চিকিৎসা প্রশাসনে প্রথমবারের মতো কোন নারী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পদ পেয়েছেন। আর সেই প্রথম বিগ্রেডিয়ার জেনারেলের নাম নাজমা বেগম। গত বৃহস্পতিবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

 

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইতিহাসে চিকিৎসা প্রশাসন থেকে সর্বপ্রথম একজন নারী কর্মকর্তা হিসেবে এই পদে পদোন্নতি পেলেন। এছাড়াও তিনিই প্রথম একজন নারী কর্মকর্তা যিনি ফিল্ড অ্যাম্বুলেন্সের অধিনায়ক হিসেবেও নিযুক্ত হন। 

 

নাজমা বেগম জাতিসংঘের ইতিহাসে প্রথম নারী কন্টিনজেন্ট কমান্ডার হিসেবে দু’বার জাতিসংঘের লেভেল-২ হাসপাতাল কমান্ড করেন এবং দু’বার মিশন এরিয়ায় কান্ট্রি সিনিয়রের দায়িত্ব পালন করেন।

 

এছাড়া, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে চাকরিকালে তিনি দু’টি (বিএএফ বেস জহুর এবং বেস বাশার) মেডিক্যাল স্কোয়াড্রন কমান্ড করেন। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে তিনি ফোর্স কমান্ডার, এসআরএসজি, মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্রের সেনাপ্রধান এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর প্রশংসাপত্র পান। 

 

আইএসপিআরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চিকিৎসা প্রশাসনে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমা বেগমের এ পদোন্নতি নারীর ক্ষমতায়নে এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করল।

 

২০১৬ এবং ২০১৯ সালের জন্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমা বেগম  ‘মিলিটারি জেন্ডার এ্যাডভোকেট’ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমা বেগমের অবদানের কথা উল্লেখ করে মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্রে নিযুক্ত জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত (এসআরএসজি) বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেডিকেল কন্টিনজেন্টের অবদান শুধুমাত্র জাতিসংঘ ও স্থানীয়দের চিকিৎসা সেবার জন্যই সকলে স্মরণ করবে না, বরং সর্বপ্রথম নারী কমান্ডার হিসেবে কর্নেল (তৎকালীন) নাজমা’র জন্যও স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’