Skip to content

২রা মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বৃহস্পতিবার | ১৯শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফিরে দেখা ‘অনন্যা শীর্ষদশ ২০১৪’

সময়ের স্রোতে তাল মিলিয়ে অনন্যা আজ ৩৩ থেকে ৩৪ বছরে পা রাখলো। অনন্যা, কথা বলে নারীদের নিয়ে, তুলে ধরে নারীদের প্রতিবন্ধকতা থেকে অগ্রযাত্রার কথা। গত ৩৩ বছরে অনন্যা তুলে ধরেছে অজস্র নারীদের গল্পকথা। নারীদের অগ্রযাত্রা ও সফলতার কথা তুলে ধরতে এবং তাদের সম্মাননা দিতে অনন্যা শীর্ষদশ পুরষ্কার, অনন্যা সাহিত্য পুরষ্কার প্রচলিত আছে।

১৯৯৩ সাল থেকে অনন্যা শীর্ষদশ পুরষ্কার দেওয়া হচ্ছে। নারীদের অগ্রযাত্রায় অনুপ্রেরণা দিতে গত ২৮ বছর থেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখা নারীদের সম্মাননা জানাতেই অনন্যা শীর্ষ দশ পুরষ্কার দেওয়া হচ্ছে। আজ অনন্যা’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এক নজরে ফিরে দেখা যাক ২০১৪-র অনন্যা শীর্ষদশ পুরষ্কার। ২০১৪ সালে অনন্যা শীর্ষ দশ পুরষ্কার প্রাপ্তরা হলেন- 

লায়লা নূর 

ফিরে দেখা ‘অনন্যা শীর্ষদশ ২০১৪’

 

তিনি ছিলেন একজন বাংলাদেশি শিক্ষাবিদ, অনুবাদক ও ভাষা সৈনিক। ১৯৫২ সালে লায়লা নূর বাংলা ভাষা আন্দোলনে যোগদান করেন। ১৯৫৫ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি তিনি আরো প্রায় ২০ নারীসহ পাকিস্তান পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন। ভাষা আন্দোলনে অংশগ্রহণের জন্য তিনি ২১ দিন কারাভোগ করেন।

 

ফারজানা ইসলাম 

ফিরে দেখা ‘অনন্যা শীর্ষদশ ২০১৪’

 

তিনি একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক। তিনি ২ মার্চ, ২০১৪ তারিখে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। তিনিই বাংলাদেশের প্রথম পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী উপাচার্য।

 

খালেদা একরাম 

ফিরে দেখা ‘অনন্যা শীর্ষদশ ২০১৪’

 

তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম নারী উপাচার্য। অধ্যাপক খালেদা একরাম বাংলাদেশের কোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব পাওয়া দ্বিতীয় নারী উপাচার্য আর বুয়েটে প্রথম নারী উপাচার্য ছিলেন।

 

মেহের আফরোজ শাওন 

ফিরে দেখা ‘অনন্যা শীর্ষদশ ২০১৪’

 

তিনি একজন বাংলাদেশি অভিনেত্রী, নৃত্যশিল্পী, সঙ্গীতশিল্পী, পরিচালক ও স্থপতি। 

 

সালমা খাতুন

 

ফিরে দেখা ‘অনন্যা শীর্ষদশ ২০১৪’

 

তিনি বাংলাদেশের প্রথিতযশা প্রমিলা ক্রিকেটার। মহিলাদের ক্রিকেটে তিনি ডানহাতে ব্যাটিং করে থাকেন। পাশাপাশি ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংও করে থাকেন।

 

এছাড়াও তাহমিনা বানু, রোকসানা সুলতানা, তুরিন আফরোজ, নাজিয়া আন্দালিব প্রেমা, নাঈমা হক, তামান্না-ই-লুতফি, দিল মনোয়ারা মনু ২০১৪ সালের অনন্যা শীর্ষ দশ পুরষ্কার পেয়েছিলেন। 

প্রসঙ্গত, অনন্যা ১৯৮৮ সাল থেকে নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে পাক্ষিক অনন্যা। অনন্যা ম্যাগাজিনের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে সামাজিক ভাবে বিভিন্ন সফল নারীদের ১৯৯৩ সাল অনন্যা শীর্ষ দশ পুরস্কার শীর্ষক বার্ষিক পুরস্কার দেওয়া হয়।

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ