Skip to content

১০ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ২৬শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঘরোয়া পদ্ধতিতে জ্বর কমানো

অনেক সময়ই এমন হয় যে ওষুধ খাওয়ার পরও জ্বর কমে না। আবার দীর্ঘ সময় ওষুধ খাওয়ার ফলে ওষুধ কাজ করতে চায় না। এই সময় কি করা যায়? অতিরিক্ত ওষুধ শরীরের ক্ষতি করে তাই ওষুধের পাশাপাশি ঘরোয়া কিছু পদ্ধতিও কাজে লাগানো যেতে পারে। এতে করে জ্বর থেকে মুক্তি না পেলেও জ্বর কিছুটা কমে যাবে। চলুন তাহলে জেনে নেই জ্বর কমানোর ঘরোয়া পদ্ধতি গুলো।

 

আদা: চা অথবা গরম জলে লেবুর সঙ্গে মিশিয়ে আদা কুচি খেতে পারেন। এটি ব্যাকটেরিয়াজনিত ইনফেকশনের সঙ্গে লড়াই করে।

 

তুলসীপাতা: এক চা চামচ জিরা এবং ৪-৬টা তুলসীপাতা এক গ্লাস পানিতে নিয়ে সিদ্ধ করে সেখান থেকে প্রতিদিন দুইবার এক চা চামচ করে খেলে জ্বর দ্রুত কমবে।

চালের সুজি: জ্বরের সময় আরেকটি উপকারী খাবার হলো চালের সুজি, সঙ্গে সামান্য আদা কুচি ও সিদ্ধ করা সবজি।

 

কিশমিশ: জ্বরে আক্রান্ত রোগীর জন্য কিশমিশ একটি উপকারী খাবার। কিশমিশে আছে ভিটামিন-সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা দ্রুত সুস্থ হতে সাহায্য করে।

 

গোলমরিচ ও লবঙ্গ: নরম ভাত, খিচুড়ি অথবা আলু সিদ্ধর সঙ্গে একটু গোলমরিচ ও লবঙ্গ মিশিয়ে খেলে জ্বরে উপকার হবে।

 

টমেটো ও গাজরের স্যুপ: জ্বরের রোগীর জন্য আরেকটি উপকারী খাবার হলো টমেটো ও গাজরের স্যুপ।

জ্বর কমাতে উপরোক্ত পদ্ধতি গুলো বেশ কার্যকর ভূমিকা পালন করে। তাই ওষুধের পাশাপাশি ঘরোয়া পদ্ধতি গুলো ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে জ্বর না সারলেও কোন পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া থাকে না।

 

 

 

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ