Skip to content

২২ মে, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঈদে ছোটদের সাজ

ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ। ঈদের খুশি বড়দের তুলনায় ছোটদের একটু বেশিই থাকে। আর তাদের খুশিকে দিগুণ করা হয় যখন তাদের নতুন জামা-কাপড় পরিয়ে সাজগোজ করিয়ে দেওয়া হয়। বাড়ির ছোট সদস্যটির জন্য যে আহামরি কিছু করতে হয় তা নয়। কিন্তু তারা নিজেদের সাজগোজ নিয়ে খুবই উত্তেজনায় থাকে। শিশুদের নতুন জামা জুতার পাশাপাশি চাই চুলের ক্লিপ, রাবার ব্যান্ড, চুড়ি, মালা আংটিসহ সাজসজ্জার নানা অনুষঙ্গ।

ছোট্ট শিশুর উপযোগী পোশাক এমন হবে যা তার শখ এবং চাহিদা দুটোই মেটায়। শিশুদের পোশাক কেনার সময় আপনাকে তাই কিছু জিনিস মনে রাখতে হবে। যেহেতু তারা ছোট ও চঞ্চল তাই তাদের কখনই খুব লম্বা অথবা খুব ছোট হবে না, যা তাদের চলা ফেরায় বাঁধা তৈরি করবে। পোশাক এবং জুতো অবশ্যই মাপ মতো হতে হবে। মাপে বড়ছোট হলে শিশুদের অস্বস্তির কারণ হয়ে যাবে।

যেহেতু এখন গরম চলছে তাই এসময় সুতি বা লিনেনের ফ্রক, শার্ট, টি-শার্ট, টপস ইত্যাদি বেছে নিতে পারেন।পোশাকের উপর সুতা, পুঁতি বা সিকুইন কাজের বাহারি ডিজাইন করা পোশাক ঈদে দারুণ মানাবে। এছাড়া নানা কাটের গাউন, টপ ও শর্ট স্কার্টও, ব্লক ও অ্যাম্ব্রোয়েডারি করা সালোয়ার কামিজ ও লং স্কার্টও বেছে নিতে পারেন। বাতাস চলাচল করতে পারে এমন ঢিলেঢালা পোশাক শিশুদের জন্য বেশি উপযোগী। এসব কাপড়ে তারা বেশি আরাম অনুভব করবে।

বাচ্চারা মা’ কে সাজতে দেখে নিজেও তেমনটি সাজার বায়না করে। কিন্তু বাচ্চাদের ত্বক সংবেদনশীল হয়। তাই বাচ্চাদের ত্বকে ফাউন্ডেশন, কাজল, আইলাইনার, মাশকারা ব্যবহার করা যাবে না। তবে মুখে ময়েশ্চারাইজার ও বেবি পাউডার লাগিয়ে নিন সেই সঙ্গে খুব বেশি বায়না করলে গালে হালকা ব্লাশঅন লাগিয়ে নিতে পারেন। নেলপলিশে তেমন কোনো ক্ষতি হয় না বলে নখ রাঙাতে বাধা নেই শিশুদের। ঠোঁটে চাইলে একদমই হালকা রঙের লিপস্টিক ব্যবহার করা যাবে। এতে শিশুদের দেখতে সুন্দর লাগবে।

বাচ্চারা চুড়ি পড়তে অনেক পছন্দ করে তাই তার ছোট্ট হাত রাঙিয়ে তুলুন চুড়িতে। তবে খেয়াল রাখবেন তা যেন কাচের চুড়ি না হয়। আবার ঈদে শিশুদের স্বর্ণ, রুপা বা ডায়মন্ডের মতো দামি কোনো কিছু পরানোও ঠিক নয়। এতে এসব জিনিস হারানোর পাশাপাশি শিশুদের জীবনের জন্যও হুমকি বয়ে আনতে পারে। তাই পরাতে পারেন রঙিন হালকা পুতির মালা। আর খুব বেশি বায়না করলে কপালে টিপও লাগাতে পারেন।

বড় চুলে পোনিটেল বা বেণি করে দিতে পারেন। এছাড়া চুল খোলা রেখে রাউন্ড ব্যান্ডও ব্যবহার করা যায়। যাদের ছোট চুল বাধা যায় না তারা প্লাস্টিক, ধাতব কিংবা কাপড়ের তৈরি ক্লিপ বা রাউন্ড ব্যান্ড ব্যবহার করতে পারেন। আর সাথে পোশাকের সাথে মিলিয়ে জুতা ও ব্যাগ। বিভিন্ন ধরনের পুতুল, কার্টুনের ছবি আছে এমন ব্যাগ বাচ্চাদের সঙ্গে দিতে পারেন এতে আরও সুন্দর লাগবে।

বাড়ির ছোট সদস্যটিই পুরো বাড়িটাকে মাতিয়ে রাখে। আর সখ পূরণ হলে তো কথাই নেই।শিশুরা অল্পতেই খুশি তাই এবারের ঈদে এই ছোট্ট শিশুকেই দেওয়া হোক বেশি প্রাধান্য।

অনন্যা/এসএএস