Skip to content

২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আইসোলেশনেই সম্ভব করোনা থেকে মুক্তি

হাসপাতালে গিয়ে নয়, বরং নিজ বাসায় থেকেই করোনার সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়া সম্ভব। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে এ কথাই জানালেন কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের চিকিত্সক ডা. মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান। দেশে করোণার সংক্রমণের শুরু থেকেই কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিলেন চিকিৎসক। গত ১৫ এপ্রিল তিনি জানতে পারেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে তার দেহে। এতে তিনি ভয় পাননি। বরং সাহসের সঙ্গে রোগের পর্যায় পেরিয়ে এসেছেন।

 

 

ডা. আতিয়ার বলেন, প্রথমে খবরটা শুনে একটু ভয় পেয়েছি। রাতে ঘুম আসে না। সহকর্মীদের সমবেদনা, সান্ত্বনাতেও কোনো সাহস জোগায়নি। চোখের সামনে কয়েক জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীকে মারা যেতে দেখলাম। সেই অনুভূতি বলে বোঝানোর নয়।

 

তিনি বলেন, আমার করোনার লক্ষণ ছিল না। কোনো কারণ ছাড়াই পরীক্ষা করে জানতে পারি যে, আমি কোভিড-১৯ আক্রান্ত। যেহেতু আমার লক্ষণ ছিল না তাই হাসপাতালে না থেকে আলাদা জায়গায় আইসোলেশনে থাকতে শুরু করি এবং ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছি।

 

তিনি আরো বলেন, লক্ষণ ছাড়াই এখন অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। এতে ভয় না পেয়ে সাহসের সঙ্গে এ রোগকে মোকাবিলা করতে হবে। বাসায় একা বিশ্রামে থেকেই এ রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। শুধু প্রয়োজন সাহস। সঠিক নিয়ম মেনে হোম আইসোলেশনে থাকতে হবে। তাহলে সাত থেকে ১৪ দিনে হাসপাতালে না গিয়েও সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়া সম্ভব।