Skip to content

২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হেমন্তী

কোন এক হেমন্তের পাতাঝরা পড়ন্ত বিকালে;
আমি বসে ছিলাম একা নির্জনে,
হলুদবর্ণের শাড়িতে সুদূরে উড়ে হাসছিলো এক তরুণী
হাজারো সুখের স্বপ্নের মাঝে ক্ষণেক্ষণে।
আমি কখনো ভাবিনি আমার ধূসর কল্পনার জগতে ;
স্বচ্ছ সাদা হৃদয়ে এভাবে কেউ রঙিন দাগ এঁকে দিবে।

ও যেন ছিলো এক প্রাণবন্ত হরিণী;
ডাগর ডাগর কাজলকালো দুচোখের দুষ্ট চাহনি,
কখন যে আমার কঠিন মন চুরি করে নিয়ে গেল হেমন্তী
অদ্ভুৎ এক নেশাতে আমি বুঝতেই পারিনি।
হেমন্তের রিমঝিম বাতাসে কালো কেশের উত্তাল ঢেউ;
আমার মনে হচ্ছিল সে যেন অনেক দিনের চেনা কেউ।

আকাশে বুক চিড়ে আঁধার নামে আলোকিত পৃথিবীতে
নীড়ে ফিরা পাখিদের কলতান থেমে যায় দিকে দিকে ;
শুধু থাকে আমাদের মুখোমুখি বসবার অপেক্ষা
জোনাকিরা মিটিমিটি কথা বলে থেকে থেকে।
অতঃপর মায়াবী সুখ তারা মায়ার আলোকচিত্রে ফিরে
ঝিরিঝিরি বাতাস হিমহিম লাগে বাড়ি ফিরার দিকে।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ