ঈদ আয়োজনে শাহী জর্দা সেমাই

ঈদ আয়োজনে শাহী জর্দা সেমাই
ঈদ আয়োজনে শাহী জর্দা সেমাই
যখন দেখবেন পানি পুরোপুরি শুকিয়ে গেছে তখন এতে চিনি দিয়ে দিতে হবে। পুরোপুরিভাবে ভাজা হলে সেমাই একেবারে ঝরঝরা হবে। রান্না শেষে হয়ে গেলে নামিয়ে তাতে ড্রাই ফ্রুটসগুলো ছড়িয়ে দিয়ে পাত্রে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন শাহী জর্দা সেমাই।

ঈদে ঘরে ঘরে সেমাই রান্না হবে না তা কি হয়? ঈদ মানে আনন্দ ঈদ মানে মিষ্টিমুখ করা। সেক্ষেত্রে সেমাই সবচেয়ে উপরে। ঈদ মানেই সেমাই এর কয়েক পদ রান্না। তাই ঈদ আয়োজনে সেমাই থাকা তো চাই ই চাই। কিন্তু কখনো কি 'শাহী জর্দা সেমাই' রান্না করে খাওয়া হয়েছে?উত্তরটা যদি হয় না তাহলে,আজকের আয়োজনটি আপনার জন্যই। জর্দা সেমাই আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয় একটি খাবার। ঈদ আয়োজনে এর কদর বেড়ে যায় বহুগুণে।তাছাড়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে । এই সেমাইটি রান্না করা খুবই সহজ। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক রান্নার রেসিপি।

 


উপকরণ 

 

সেমাই এক প্যাকেট
নারিকেল কুচি আধা কাপ
তেজপাতা দুইটি
এলাচ একটি
দারুচিনি তিনটি
লবণ সামান্য
ঘি তিন টেবিল চামচ
চিনি পরিমাণ মত
কাঠ বাদাম
কাজু বাদাম
চিনা বাদাম
পেস্তা বাদাম
কিশমিশ
চেরি পছন্দমত

 


প্রণালী

 

শুরুতে একটি প্যান গরম করে তাতে অল্প আঁচ দিয়ে সেমাইগুলোকে আস্তে ধীরে হালকা ভাবে ভেজে নিতে হবে। যখন ভাজা হয়ে যাবে,তখন একটি পাত্রে পানি হালকা গরম করে নিয়ে তার মধ্যে সেমাইগুলোকে দিয়ে চার থেকে পাঁচ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। পরে ছাঁকনির সাহায্যে  পানি ঝরিয়ে নিতে হবে।

 

এখন অন্য আর একটি প্যানে নারিকেল ও ড্রাই ফ্রুটস ছাড়া বাকি সবকিছু অল্প পরিমাণে একটু ঘি দিয়ে ভালো ভাবে ভেজে নিন। এবার অন্য একটি প্যানে পরিমাণ মতো ঘি দিয়ে তাতে সেমাইগুলোকে দিয়ে অল্প জ্বাল দিয়ে পানি শুকিয়ে যাওয়া অব্দি ভাজতে থাকুন।

 

যখন দেখবেন পানি পুরোপুরি শুকিয়ে গেছে তখন এতে চিনি দিয়ে দিতে হবে। পুরোপুরিভাবে ভাজা হলে সেমাই একেবারে ঝরঝরা হবে। রান্না শেষে হয়ে গেলে নামিয়ে তাতে ড্রাই ফ্রুটসগুলো ছড়িয়ে দিয়ে পাত্রে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন শাহী জর্দা সেমাই।


ঈদে সেমাই হোক ভিন্ন স্বাদে ভিন্ন রূপে। এতে যেমন খাওয়ার আগ্রহ বাড়বে তেমনি খেতে ও লাগবে মজাদার। ছোট বড় সবার প্রিয় শাহী জর্দা সেমাই।