তেঁতুলের পর এবার নারী হলেন কাটা তরমুজ

‘হিজাবহীন নারী নাকি কাটা তরমুজ’
ছবি: সংগৃহীত
আফগানিস্তান দখলের পর তালেবানরা আশ্বাস দিয়েছিলো নতুন সরকার গঠন হলে নারীদের সম্পূর্ণ অধিকার দেয়া হবে। আফগান নারীদের পূর্ণ সম্মান দেওয়া হবে। এমনকি পড়াশোনা এবং কাজেরও সুযোগ পাবেন তারা। তারা বলেছিলো পূর্ববর্তী তালেবানি কঠোরতা থেকে তারা এবার সরে আসবে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের ব্যাপার হলো তালেবানদের কথার সাথে কাজের মিল পাওয়া যায়নি। দিন যত যাচ্ছে তালেবানকে পুরনো রূপে দেখা যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারে নারীদের কোনো অংশগ্রহণ নেই, নারীদের ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া, চাকরিজীবী নারীদের ঘরে থাকার আদেশ এসবই জানান দেয় তালেবান আসলে তালেবানই রয়ে গেছে।

সম্প্রতি মিডিয়ায় আফগানিস্তানের তালেবান যোদ্ধাদের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে তারা হিজাব না পরা নারীদের নিয়ে বাজে মন্তব্য করছে। সেখানে এক তালেবান যোদ্ধাকে বলতে শোনা যাচ্ছে, হিজাব না পরা নারী আসলে ‘কাটা তরমুজের মতো’। নারীদের নিয়ে এরকম অপমানজনক মন্তব্য তালেবানদের মানসিকতাকেই প্রকাশ করে। 

 

তিনি বলেন, ‘আপনারা কি কেউ কাটা তরমুজ কেনেন? নাকি আস্ত তরমুজ কেনেন? অবশ্যই গোটাটাই কেনেন। হিজাব না পরা মেয়েরা হলো ‘কাটা তরমুজের মতো’। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির সাংবাদিক জিয়া শাহরিয়ার ভিডিওটি শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই বিতর্ক শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে। দেশের সচেতন নাগরিকরাও তালেবানের এই মন্তব্যে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। এ ধরনের মন্তব্য থেকেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে তালেবানের কাছে আজও নারীরা ‘বস্তু’ হিসেবেই রয়ে গেছে। অনেকেই ক্ষিপ্ত হয়ে বলেছেন যে তালেবানরা নারীকে কেনার কথা ভাবে কীভাবে? এই তাদের নারী অধিকার? 

 

আফগানিস্তান দখলের পর তালেবানরা আশ্বাস দিয়েছিলো নতুন সরকার গঠন হলে নারীদের সম্পূর্ণ অধিকার দেয়া হবে। আফগান নারীদের পূর্ণ সম্মান দেওয়া হবে। এমনকি পড়াশোনা এবং কাজেরও সুযোগ পাবেন তারা। তারা বলেছিলো পূর্ববর্তী তালেবানি কঠোরতা থেকে তারা এবার সরে আসবে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের ব্যাপার হলো তালেবানদের কথার সাথে কাজের মিল পাওয়া যায়নি। দিন যত যাচ্ছে তালেবানকে পুরনো রূপে দেখা যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারে নারীদের কোনো অংশগ্রহণ নেই, নারীদের ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া, চাকরিজীবী নারীদের ঘরে থাকার আদেশ এসবই জানান দেয় তালেবান আসলে তালেবানই রয়ে গেছে।