অফিসে যদি যেতেই হয়

অফিসে যদি যেতেই হয়। ছবি: তানভির আহমেদ
করোনাকালীন সময়ে অধিকাংশ মানুষ ঘরে বসে অফিস করলেও অনেকেরই নিয়মিত যেতে হচ্ছে অফিসে। সাংবাদিক, চিকিৎসক, পুলিশ বা জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানে চাকরিরতদের অনেকেরই ছুটি বাতিল হয়েছে এই দুর্যোগকালে।

 

এ সময় যদি আপনাকে বাসা থেকে বের হলেই করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা বেড়ে যায় অনেকখানি। আর আপনি সংক্রমিত হলে হয়তো আপনার অজান্তের আপনার থেকে অফিস, পরিবার এমনকি রাস্তার অনেকেই সংক্রমিত হতে পারেন। তাই এই সময়ে যদি বাইরে যেতেই হয়, তাহলে কিছু বিষয়ে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে আপনাকে। এগুলো হলো,

 

১. বাসা থেকে বের হওয়ার সময় মাস্ক ও গ্লাভস পরুন। প্রতিদিন নতুন মাস্ক নিয়ে বের হোন। একটি মাস্ক এক দিনের বেশি ব্যবহার না করাই ভালো।

২. ছোট্ট একটি হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা হেক্সিসলের বোতল সঙ্গে রাখুন।

৩. অপরিচিত মানুষের সাথে রিকশা চলাচল থেকে বিরত থাকুন। গণপরিবহনের ক্ষেত্রে অন্য যাত্রীদের থেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। সিটে বসার আগে সেখানে জীবাণুনাশক ¯েপ্র করে নিন।

৪. যেকোনো রকমের আর্থিক লেনদেনের পর দুই হাত স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করুন।

৫. অফিসে প্রবেশের আগে সাবান বা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড হাত ধুয়ে নিন। সম্ভব হলে জুতার তলাতে জীবানুনাশক ছিটিয়ে দিন।

৬. অফিসের টেবিলে একটি হেক্সিসল বা স্যানিটাইজারের বোতল রেখে দিন।

৭. অফিসেও মাস্ক ব্যবহার করুন এবং সহকর্মীদের থেকে অন্তত ৩ মিটার দূরত্ব বজায় রাখুন।

 

এছাড়া বাসায় প্রবেশের পর সরাসরি বাথরুমে চলে যান। সেখানে সব জামা-কাপড় ধুয়ে নিন। একই সাথে আপনার সাথে থাকা মোবাইল, ব্যাগ, চশমা ইত্যাদি যা সারাদিন ব্যবহার করেছেন তা জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করুন। আর সবশেষে অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন। সম্ভব হলে গোসল সেরে বের হোন।