অনলাইনে যত শপিং

অনলাইনে যত শপিং
অনলাইনে যত শপিং
ঈদ কেনাকাটাকে কেন্দ্র করে অনলাইনের শপগুলোতেও এসেছে বাহারি সব পোশাক। তারাও দিচ্ছে নানা বিজ্ঞাপন। এখানে আপনার পছন্দ করার জন্যেও অনেক সুযোগ রয়েছে৷ অনেক সময় বিভিন্ন অফারেরও সুযোগ থাকে অনলাইন শপগুলোতে।

করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। প্রায় সব দেশেই করোনা ছড়িয়ে পড়েছে।মানুষের কাছে এখন মৃত্যু বিভীষিকা হয়ে উঠেছে COVID-19। এইসময়ে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন সচেতনতা। সামনে রয়েছে ঈদ-উল- ফিতর৷ যেহেতু এবারও ঘরে বসেই ঈদ করতে হচ্ছে সেক্ষেত্রে ঈদ শপিং টাও না হয় ঘরে বসেই হোক। 

 

করোনা রুখতে সবাইকে ঘরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। যতটা সম্ভব লোকসমাগম এড়িয়ে চলাই উত্তম। তাই ঈদ শপিং- এ এবার আর বাইরে না গিয়ে ঘরে বসে অনলাইনে করে নিতে পারেন। একদিকে লোকসমাগমও এড়ানো হলো অন্যদিকে শপিংও।কারণ এসময়ে শপিংমলে যাওয়া মোটেও নিরাপদ নয়। তাই অনলাইনই এখন ভরসা।

 

সময় ও স্রোতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলছে প্রযুক্তির উন্নতি সাধন। বেড়েছে নির্ভরযোগ্যতা। ভিড় ঠেলে শপিং করার দিন শেষ। প্রযুক্তি এখন অনেক বেশি উন্নত,সমৃদ্ধ। ইন্টারনেটের কল্যাণে ঘরে বসেই  পাওয়া যাচ্ছে কেনাকাটার সুযোগ। এতে মার্কেটের অপরিচিত মানুষের সঙ্গে মেলামেশা কিংবা ছোঁয়াছুঁয়ি এড়ানো সম্ভব হচ্ছে।

 

বাংলাদেশে দু'ধরনের অনলাইন শপিং ব্যবস্থা রয়েছে। একটা অনলাইন শপ এবং অন্যটা অনলাইন মার্কেটপ্লেস। অনলাইন শপে পুরোটাই অনলাইনে। ক্রেতারা অনলাইনেই পণ্য পছন্দ করে অর্ডার করেন৷ এরপর ক্রেতাকে তাঁর বাসা বা ডেলিভারি পয়েন্টে পণ্য পৌঁছে দেয়া হয়।আর অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ই সক্রিয় থাকেন৷ কেউ পণ্য বিক্রির অফার করেন৷ আবার কেউ বা কিনতে চান৷ তবে যোগাযোগটা অনলাইনের হলেও বেচা-কেনা হয় ব্যক্তিগত পর্যায়ে যোগাযোগের মাধ্যম।


তাই এখন দোকানে দোকানে ঘুরে জিনিসপত্র কেনাকাটার সময় প্রায় শেষ। মুহূর্তের মধ্যেই আপনার পছন্দের পণ্যটি অর্ডার করতে পারবেন ঘরে বসেই৷ এতে সময়ও বাঁচবে অনেক। 

 

ঈদ কেনাকাটাকে কেন্দ্র করে অনলাইনের শপগুলোতেও এসেছে বাহারি সব পোশাক। তারাও দিচ্ছে নানা বিজ্ঞাপন। এখানে আপনার পছন্দ করার জন্যেও অনেক সুযোগ রয়েছে৷ অনেক সময় বিভিন্ন অফারেরও সুযোগ থাকে অনলাইন শপগুলোতে।

 

অনলাইনে এখন সবধরনের পণ্যই পাওয়া যায়। বিভিন্ন সাজসজ্জার প্রসাধনী থেকে শুরু করে রান্নাঘরের যাবতীয় জিনিসপত্র অনলাইনে কেনা সম্ভব। যখন যে জিনিসটা প্রয়োজন অর্ডার করার কিছু সময়ের মধ্যে সেটা আপনার বাসায় ডেলিভারিও হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে শপের ভিন্নতায় ডেলিভারি সময়ের পার্থক্য রয়েছে। 

প্রতিবারের অন্য পাঁচটা ঈদের কাছে এই ঈদটিও একদমই ভিন্ন। করোনার কারণে ঈদ আনন্দ অনেকটাই ম্লান হয়ে গেছে। ঘরে বসে প্রিয়জনদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করতে হবে। বাইরে ঘুরতে যাবার সুযোগ নেই। নিজেদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে এবার ঈদ কেনাকাটায়ও আনুন পরিবর্তন। যতটা সম্ভব প্রয়োজনীয় জিনিসগুলোকে বেশি প্রাধান্য দিন। তবে চেষ্টা করুন অনলাইনেই সবটা করে ফেলতে। 

 

তবে অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রেও কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। অনলাইনে অর্ডার করলেও ডেলিভারি হবে আপনার ঠিকানায়, আপনার বাসাতেই। তাই পণ্যটি বিনিময়ের সময় সচেতনতা অবলম্বন করা জরুরি।