বেলের নানা গুণাগুণ 

বেলের নানা গুণাগুণ
বেলের নানা গুণাগুণ
বেল কিডনি ভালো রাখতে সহায়তা করে। বেলে থাকা বিভিন্ন উপাদান কিডনির নানা সমস্যা থেকে কিডনিকে রক্ষা করে। ফলে কিডনির মারাত্মক রোগ থেকেও মুক্তি মেলে।

বেল খুবই পুষ্টিকর ও উপকারী ফল। খেতেও বেশ সুস্বাদু। প্রচণ্ড গরমের তাপদহে যখন আমরা ক্লান্ত তখন বেলের শরবতে খুঁজে পাই প্রশান্তি। গরমে স্বস্তি মেলাতে বেলের শরবতের জুড়ি নেই। এটি স্বাস্থ্যের জন্যই দারুণ উপকারি।


বেল আমাদের শরীরে এনার্জির পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। ১০০ গ্রাম বেল শরীরে ১৪০ ক্যালোরি এনার্জি দেয়। তাই শরীর যখন দুর্বল হয়ে পরে তখন বেল শক্তি যোগায়। তাই সুস্থ থাকতে বেল খাওয়া জরুরি।

 


বেলে প্রচুর পরিমাণে পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও পটাশিয়াম রয়েছে । এসব উপাদান সহজেই শরীরের বিভিন্ন রোগবালাই দূর করে শরীর রাখে সুস্থ এবং কার্যক্ষম।


বেল রক্তকে পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে। এটি শরীর থেকে টক্সিন দূর করে শরীরকে ভেতর থেকে করে পরিষ্কার। বেলে থাকা ভিটামিন সি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বাড়িয়ে তোলে৷ তাই গ্রীষ্মকালে বেল খেলে অনেক রোগ থেকে মুক্তি মেলে। 

 


বেল হজমে সহায়তা করে৷ ফলে কোষ্ঠকাঠিন্যের মত কঠিন রোগ হওয়ার শঙ্কা কমে। কোষ্ঠকাঠিন্যের সময়ে পেটব্যথা হয় সেই ব্যথা প্রশমনে বেল কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এছাড়াও পেটের নানা সমস্যা যেমন আমাশয়, ডায়রিয়া ইত্যাদি রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। 


বেল একটি আঁশ জাতীয় ফল। এই ফল ত্বকের নানা সমস্যার সমাধান হিসেবে কাজ করে। বেল ত্বককে করে মসৃণ। ফলে ত্বক থাকে সুন্দর। তাই নিয়মিত বেল খাওয়ার অভ্যাস করতে পারলে ত্বকে মারাত্মক কোন সমস্যা হওয়ার ভয় থাকে না। এছাড়াও বেল ব্রণের সমস্যা থেকেও মুক্তি মেলায়। এই আঁশ জাতীয় খাবার গ্যাস্টিক বা আলসারের মত সমস্যা থেকে রেহাই দেয়। তাই বেল খেলে এ জাতীয় সমস্যা থেকে সহজেই মুক্ত থাকা যায়।

 


বেল কিডনি ভালো রাখতে সহায়তা করে। বেলে থাকা বিভিন্ন উপাদান কিডনির নানা সমস্যা থেকে কিডনিকে রক্ষা করে। ফলে কিডনির মারাত্মক রোগ থেকেও মুক্তি মেলে। তাই নিয়মিত বেল খাওয়ার অভ্যাস আপনার শরীরে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরির পাশাপাশি আপনাকে অনেক রোগ থেকে রক্ষা করবে।