পুদিনার যত গুনাগুণ

পুদিনার যত গুনাগুণ
পুদিনার যত গুনাগুণ
পুদিনা পাতা নিয়ে অনেক বিজ্ঞানীরা দাবি করেন,  এতে ক্যান্সার প্রতিরোধের ক্ষমতা রয়েছে।  পুদিনা পাতার পেরিলেল অ্যালকোহল যা ফাইটো নিউট্রিয়েন্টসের একটি উপাদান দেহে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাধা প্রদান করে।

ছোটোখাটো একধরনের গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ পুদিনা।  তবে দেখতে ছোটোখাটো হলেও এর উপকারিতা নেহাত কম নয়।  এর মূল থেকে শুরু করে পাতা, ফুল সবই ব্যবহারযোগ্য।  আর খুব সহজলভ্য হওয়ায় দিন দিন এর ব্যবহার বেড়েই চলেছে।  এর বিভিন্ন ঔষধি গুনাগুণ তো রয়েছেই সাথে কাজ করছে রূপচর্চার উপাদান হিসেবেও। পুদিনার কিছু গুরুত্বপূর্ণ গুনাগুণ নিয়ে তাই আমাদের আজকের এই আয়োজন।  

 

 

পুদিনা পাতা নিয়ে অনেক বিজ্ঞানীরা দাবি করেন,  এতে ক্যান্সার প্রতিরোধের ক্ষমতা রয়েছে।  পুদিনা পাতার পেরিলেল অ্যালকোহল যা ফাইটো নিউট্রিয়েন্টসের একটি উপাদান দেহে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাধা প্রদান করে।

 


পুদিনা পাতায় উপস্থিত অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস  পেটের যে কোনও সমস্যার দ্রুত সমাধান করতে পারে ।  হজমের সমস্যা এবং পেটের ব্যথা কিংবা পেটের নানান সমস্যার জন্য পুদিনা পাতা হতে পারে গুরুত্বপূর্ণ সমাধান। 

 


ব্যথানাশক হিসেবে দারুণ কাজ করে পুদিনা পাতার রস। পুদিনা পাতার রস চামড়ার ভেতর দিয়ে নার্ভে পৌঁছে নার্ভ শান্ত করতে সহায়তা করে। যার কারণে তাৎক্ষণিক ভাবে এটি ব্যথা উপশম করতে সক্ষম হয়। তাই মাথা ব্যথা বা জয়েন্টে ব্যথাসহ যেকোনো ধরনের ব্যথা উপশমে পুদিনা পাতা ব্যবহার করা যায়। 

 


যারা অ্যাজমা এবং কাশির সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য পুদিনা পাতার রস হতে পারে বেশ উপকারী।  শ্বাসপ্রশ্বাসের নালী খুলে দেয়ার কাজে পুদিনা পাতার রস বেশ সহায়তা করে। 

 


রোদেপোড়া ত্বকের জ্বালাপোড়া কমাতে পুদিনাপাতার রস বেশ উপকারী।  এক্ষেত্রে পুদিনাপাতার রস ও অ্যালোভেরার রস একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে পনেরো মিনিট পর ধুয়ে নিলে তাৎক্ষণিক ত্বকের জ্বালাপোড়া কমাতে সাহায্য করবে। 

 


ব্রণের দাগ দূর করতেও  পুদিনা পাতার রস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্রতিদিন রাতে পুদিনা পাতার রস আক্রান্ত স্থানে  অন্তত ২-৩ ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। মাস খানেকের মধ্যেই ফলাফল পেয়ে যাবেন। 

 


ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতেও সাহায্য করতে পারে পুদিনা। তবে এক্ষেত্রে পুদিনার সাথে যুক্ত করতে হবে গোলাপ, আমলা, বাঁধাকপি ও শসা। এদের নির্যাস একসঙ্গে মিশিয়ে টোনার তৈরি করে মুখে লাগালে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির সাথে সাথে  মসৃণতাও বৃদ্ধি পাবে ।