ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে কারি পাতা

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে কারি পাতা
ছবি: সংগৃহীত
যারা ডায়াবেটিস এর রোগী তারা নিয়মিত খেতে পারেন কারি পাতা। ২/৩ টি কারি পাতা ভালো ভাবে ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এইবার এই পাতা চিবিয়ে খেয়ে নিন। অথবা আপনি চাইলে বেটে বা ব্লেন্ডার করে এর এক চামচ করে রস খেতে পারেন নিয়মিত। এতে করে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে এবং শরীরও থাকবে রোগ-বালাই থেকে মুক্ত। 

ডায়াবেটিস হোক বা শরীরের বাড়তি মেদ। সব নিয়ন্ত্রণ করে এই কারি পাতা। কারি পাতা অনেকেই রান্নায় ব্যবহার করে থাকেন। এই কারি পাতা রান্নায় ব্যবহার করা হলে তরকারির পুষ্টি উপাদান অনেক বেশি পরিমাণে বেড়ে যায়। এতে করে শরীর সুস্থ থাকে সেই সাথে যাদের ডায়াবেটিস এর সমস্যা আছে সেটি নিয়ন্ত্রণে চলে আসে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে।

 

কারি পাতা শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এটি গবেষণায়ও প্রমাণিত হয়েছে। কারি পাতা কিভাবে শরীরের মেদ কমাতে বা ডায়াবেটিস কমাতে সাহায্য করে আমরা আজ তা জানবো । 

 

যারা ডায়াবেটিস এর রোগী তারা নিয়মিত খেতে পারেন কারি পাতা। ২/৩ টি কারি পাতা ভালো ভাবে ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এইবার এই পাতা চিবিয়ে খেয়ে নিন। অথবা আপনি চাইলে বেটে বা ব্লেন্ডার করে এর এক চামচ করে রস খেতে পারেন নিয়মিত। এতে করে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে এবং শরীরও থাকবে রোগ-বালাই থেকে মুক্ত। 

 

ওজন কমাতে কারি পাতার ব্যবহার তো আগে থেকেই হয়ে আসছে । তাই যারা অল্প সময়েই ওজন কে বশ করতে চান তারা ২০/২৫ টা কারি পাতা ১ লিটার পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন। আধা লিটার হয়ে এলে, এবং কারি পাতা নিজের রঙ সম্পূর্ণ ছেড়ে দিলে পানি নামিয়ে ছেঁকে নিন। ঠাণ্ডা করে এক গ্লাস পরিমাণ নিয়ে এতে এক চা চামচ মধু ও এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে খেয়ে নিন। ব্যস, ওজন কমবে চটজলদি। 

 

যারা চুলের সমস্যায় ভুগছেন তারা যে তেল ব্যবহার করবেন যেমন, অলিভ অয়েল, নারিকেল তেল, নিমপাতার তেল যাই ব্যবহার করেন না কেনো সেই তেলের সাথে ২ টি কারি পাতা চুলায় হালকা জ্বাল দিয়ে গরম করে মাথায় দিয়ে দিন। এতে চুল পড়া বন্ধ হবে, চুল হবে খুসকি মুক্ত।