রোগ প্রতিরোধে অতিরিক্ত লবণ এড়িয়ে চলুন

রোগ প্রতিরোধে অতিরিক্ত লবণ এড়িয়ে চলুন
রোগ প্রতিরোধে অতিরিক্ত লবণ এড়িয়ে চলুন
লবণে থাকা সোডিয়াম রক্তে  উচ্চ মাত্রায় থাকলে কিছু শ্বেত কণিকা অস্বাস্থ্যকর কোষের ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব ফেলে বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। এটি মূলত শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা সৃষ্টি করে।  ফলে দেহের কোষ অক্সিজেন কম গ্রহণ করে এবং এটিপিও কম উৎপাদন করে। 

করোনা দ্বিতীয় ঢেউয়ের পাশাপাশি দেশে এখন ভারতে করোনার ভ্যারিয়েন্টও ধরা পড়েছে৷ এসময়ে সচেতনতা এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো ছাড়া মুক্তির কোন উপায় নেই। করোনা টিকার সম্পূর্ণ ডোজ সম্পন্ন হওয়াও সাপেক্ষ বিষয়।  তাই নিজের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তুলতে জোর দিতে হবে খাবার তালিকায়৷ 

 

আর অনেকেই আছেন যারা খাবারের সাথে অতিরিক্ত লবণ গ্রহণ করেন। রান্নার প্রয়োজনীয় লবণের বাইরেও যারা কাঁচা লবণ খেয়ে থাকেন।  

 

আর এই অতিরিক্ত লবণ উচ্চ রক্তচাপ থেকে শুরু স্থূলতা, হৃদরোগ, স্ট্রোকের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এমনকি খাবারে এই অতিরিক্ত লবণ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়৷ 

 

লবণে থাকা সোডিয়াম রক্তে  উচ্চ মাত্রায় থাকলে কিছু শ্বেত কণিকা অস্বাস্থ্যকর কোষের ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব ফেলে বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। এটি মূলত শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা সৃষ্টি করে।  ফলে দেহের কোষ অক্সিজেন কম গ্রহণ করে এবং এটিপিও কম উৎপাদন করে। 

 

'এটিপি' হচ্ছে মূলত একপ্রকার জ্বালানি যা দেহের কোষে শক্তি জোগায়। এই 'এটিপি' দেহের বিপাক ক্রিয়াকে নিয়মিত রাখে। 

 

আর অতিরিক্ত লবণ গ্রহণে শরীরের এই পুরো প্রক্রিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমতে থাকে। যা এই অতিমারির সময়ে অত্যন্ত বিপদজনক। তাই খাবার অতিরিক্ত লবণে পরিমাণ এড়িয়ে চলুন। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে অক্ষুণ্ণ রেখে সুস্থ থাকুন।