বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমাতে ভিন্ন গল্পে ভিন্ন মাত্রা

বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমাতে ভিন্ন গল্পে ভিন্ন মাত্রা
বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমাতে ভিন্ন গল্পে ভিন্ন মাত্রা
সিনেমার মধ্য দিয়ে যদি মূল্যবোধ আর সচেতনতা তৈরি করার গল্প থাকে তবে তা দর্শক মনে যেমন বিনোদনের খোরাক মেটায় তেমনি আমাদের সমাজের অন্ধকার দিক গুলো নিয়ে ভাবনার জায়গাও তৈরি করতে সক্ষম। এমনই একটি সিনেমা 'নবাব এলএলবি'।

বাঙালী বরাবরই বিনোদন প্রেমী। স্বল্পতার দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, নাটক কিংবা সিনেমায় এঁদের আগ্রহ সবসময়ই উঁচুতে। সেই ধারাবাহিকতায় সিনেমাও তৈরি হয় এদেশে। বাণিজ্যিক  কিংবা আর্ট ফিল্ম, ভালো মানের সিনেমাই উপহার দিন পরিচালকরা সিনেমা প্রেমী দর্শকদের। 

 

আর সিনেমার মধ্য দিয়ে যদি মূল্যবোধ আর সচেতনতা তৈরি করার গল্প থাকে তবে তা দর্শক মনে যেমন বিনোদনের খোরাক মেটায় তেমনি আমাদের সমাজের অন্ধকার দিক গুলো নিয়ে ভাবনার জায়গাও তৈরি করতে সক্ষম। এমনই একটি সিনেমা 'নবাব এলএলবি'।

 

একজন স্বাধীনচেতা নারী, যিনি পেশায় রেডিও আরজে। তার ধর্ষিত হওয়া এবং ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করে অপরাধীদের দৃষ্টান্ত শাস্তি দেওয়ার মধ্য দিয়ে এই সিনেমার গল্প এগিয়ে যায়। 
কেন্দ্রীয় চরিত্রে ছিলেন মাহিয়া মাহি এবং শাকিব খান। এছাড়াও ছিলেন  অর্চিতা স্পর্শিয়া, সাহাদুজ্জামান সেলিম, সুষমা সরকার সহ অনেকেই।  কাহিনী, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় ছিলেন : অনন্য মামুন। 

 

বাণিজ্যিক ধরনের সিনেমাতে এমন ধর্ষণ বিরোধী প্রচারণা বাংলাদেশের সিনেমাতে এই প্রথমবার তুলে ধরা হয়। তাই আশা করা যায় বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে সিনেমাটি এক যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে।  
সিনেমাটিতে নারী নির্যাতন ও তার পরে নির্যাতিত নারীর সামাজিক বাধা বিপত্তির মধ্য দিয়ে যে লড়াই করে বেঁচে থাকতে হয় সে চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। 

 

যেমনটা এর আগে কোন বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমাতে দেখানো হয়নি। আশা করা যাচ্ছে সিনেমাটি দর্শক মনে বর্তমান সমাজের প্রেক্ষাপট নিয়ে ভাবনা জাগাবে। সচেতনতা সৃষ্টির সাথে সাথে এমন সিনেমা মানসিকতার পরিবর্তনও ঘটাতে পারে।