সঠিক বিচার চায় পরীমনি।

সঠিক বিচার চায় পরীমনি।
ছবি: সংগৃহীত
উত্তরা বোট ক্লাবে  নাসীরউদ্দীন আহমেদ নামে এক ব্যক্তি পরীমনির উপর শারীরিক নির্যাতন ও ধর্ষণের চেষ্টা চালান। যার সাথে পরীমনির আগে থেকে কোনো ব্যক্তিগত পরিচয়ও ছিলো না বলে তিনি জানান৷ 

ধর্ষণ ও খুনের চেষ্টার অভিযোগ এনে গত রোববার ১৩ ই জুন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের গ্ল্যামার গার্ল খ্যাত অভিনেত্রী পরীমনি নিজের ভ্যারিফাইড ফেসবুক পেইজ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবর বিচার চেয়ে  একটি স্ট্যাটাস লেখেন।   

 

উত্তরা বোট ক্লাবে নাসীরউদ্দীন আহমেদ নামে এক ব্যক্তি পরীমনির উপর শারীরিক নির্যাতন ও ধর্ষণের চেষ্টা চালান। যার সাথে পরীমনির আগে থেকে কোনো ব্যক্তিগত পরিচয়ও ছিলো না বলে তিনি জানান৷ 

 

ঘটনার পরপরই ওখান থেকে বেরিয়ে প্রায় ভোর রাতের দিকে পরীমনি বনানী থানায় মামলা করতে গেলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা না থাকায়  তার সাথে পরবর্তীতে যোগাযোগ করা হবে বলে থানা থেকে জানানো হয়৷ কিন্তু চারদিন পার হয়ে যাওয়ার পরও থানা থেকে কোনোরকম যোগাযোগ করা হয়নি। নিজের চলচ্চিত্র বন্ধু পুলিশ প্রধান বেনজীর আহমেদের কাছে সাহায্যের জন্য চারদিন ধরে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পায়নি বলে জানান এই চিত্রনায়িকা।  

 

এবিষয়ে পরীমনি জানান, ঘটনাস্থলে নাসিরউদ্দিন বারবার বেনজীর আহমেদের নাম নেন। পরবর্তীতে তিনি ১৩ তারিখ রাতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে একটি আবেগ-ঘন স্ট্যাটাস দেন। যেখানে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে মা বলে সম্বোধন করেন। এবং এর পরই তিনি একটি সংবাদ সম্মেলনও করেন। 

 

সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযুক্তের নাম উল্লেখ করে বিচার প্রার্থনা করেন। গণমাধ্যমের প্রতি বিশ্বাস রেখে পরীমনি জানায় তার কাছে অভিযুক্তের পাঠানো মেসেজ, কিছু রেকর্ডিং প্রমাণ হিসেবে রয়েছে যেগুলো তিনি সকলকে দেখাতে চান। ঘটনার সম্পূর্ণ বর্ণনা দিয়ে সংবাদকর্মীদের এসব প্রমাণ দেখান। 

 

এসময় পরীমনি বলেন, এই পরিস্থিতিতে তার কোনো নিরাপত্তা নেই। এমনকি আত্মহত্যা করার মত সাহস ও মানসিকতাও তার নেই৷ তবে তার সাথে এধরণের কোনো ঘটনা ঘটলে সেটা হবে খুন। এমন পরিস্থিতিতে সকলের সাহায্য কামনা করেন পরীমনি।