Skip to content

২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | বৃহস্পতিবার | ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ত্বকের যত্নে টমেটো

ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটানোর মধ্যে দিয়ে সার্বিক সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে টমেটো বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। অল্প দিনে ত্বককে সুন্দর করতে হলে রোজ টমেটোর রস মুখে লাগাতে পারেন। পাকা-টমেটো সৌন্দর্য চর্চায় অনেক অবদান রাখে। টমেটোর পেস্ট মুখের দাগ, ছোপ ও রোদে পোড়াভাব কমায়। টমেটো একটি প্রাকৃতিক সংকোচক (অস্ট্রিঞ্জেন্ট) যা আপনার ত্বকের ছিদ্র পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। এছাড়াও টমেটোর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমূহ আপনার ত্বক কে দীর্ঘক্ষণের জন্য তরুণ এবং তাজা দেখাতে সাহায্য করে।

এই টমেটো দিয়ে নিজেই ঘরে বানিয়ে ফেলতে পারেন ফেইস ক্লিনার বা টোনার। যা আপনার ত্বকে ক্ষতিকর কেমিক্যাল থেকে সুরক্ষা দেবে। আবার টমেটোর স্ক্রাবও ত্বকের জন্য অনেক ভালো। এতে ক্যামিক্যাল পদার্থ না থাকায় ত্বকে এটি ক্ষতি করেনা। চলুন দেখে নেয়া যাক টমেটোর স্ক্রাব ও টোনার তৈরি পদ্ধতি।

 

টোনার তৈরি পদ্ধতি:

 

একটা পরিষ্কার ব্লেন্ডারের ভেতর একটা ছোট শসা ও একটা বড় টমেটো দিন। এবার সেটা ভালোমতো ব্লেন্ড করে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণ হয়ে গেলে একটা বয়ামে ভরে এই মিশ্রণটি ফ্রিজে রাখুন। মিশ্রণটি তিন দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যাবে। এই টোনার একটু তুলা বা সুতি পরিষ্কার নরম কাপড়ের সাহায্যে মুখ ও ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। মুখে লাগিয়ে পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ও ঘাড় ধুয়ে ফেলুন। টমেটোতে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ত্বকের নানা রকম ক্ষতিকর র‍্যাডিকেলস  দূর করে। ত্বক করে তোলে কোমল ও স্বাস্থ্যকর। সূর্যের তাপে যাদের ত্বকে জ্বালা অনুভব করেন এই টোনার তাদের জন্য দরুন কার্যকর।
 

 

ফেইসস্ক্রাব তৈরি পদ্ধতি: 

 

একটা টমেটো কুচি (চপড) করে কেটে নিন। এবার তার ওপরে চা-চামচের পাঁচ ভাগের একভাগ পরিমাণ চিনি ছিটিয়ে দিন। এবার এই টমেটো আপনার মুখের ত্বকে সার্কেল করে ধীরে ধীরে ঘষতে থাকুন। অবশ্যই এই স্ক্রাব ঘষার সময়ে সাবধান থাকুন যেন বেশি জোরে না ঘষা লাগে। মুখের ত্বক স্পর্শকাতর, বেশি জোরে ঘষলে র‍্যাশ উঠে মুখ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। জোরে ঘষা লাগলে মুখ জ্বালাপোড়া করে। স্ক্রাব ব্যবহারের কয়েক মিনিট পর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঘুমানোর আগে এই স্ক্রাব ব্যবহার করতে পারেন। কয়েক দিন ব্যবহারের পর সকালে উঠে দেখবেন ত্বক কোমল ও মোলায়েম হয়ে পড়েছে।