Skip to content

২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নিয়মিত হাঁটার ব্যাপারে কিছু সচেতনতা

ওজন নিয়ে আমাদের সমস্যার যেন অন্ত নেই। নিত্যনতুন পন্থা অবলম্বন করছি ওজন কমানোর জন্য।  কিন্তু ওজন কমানোর সবচেয়ে সহজ একটি বিষয় হল নিয়মিত হাঁটা। অনেকেই হয়তোবা ওজন কমানো এবং সুস্থ থাকার উদ্দেশ্যে  হাঁটছেন,  আবার অনেকেই হয়তোবা নিয়মিত হাঁটার মানসিক প্রস্তুতি নিচ্ছেন।  তাই চলুন আগে থেকেই জেনে নেই নিয়মিত হাঁটার ব্যাপারে যেসব বিষয়ে  সচেতন থাকা জরুরী:

 

কতটা হাঁটবেন

গবেষণায় বলা হয় যখন কোন ব্যক্তি ১০০০ স্টেপ হাঁটেন, তখন তার শরীর থেকে  ৩০ থেকে ৪০ ক্যালরি ঝরে যাবে । সেক্ষেত্রে যদি ১০,০০০ স্টেপ হাঁটা যায় তাহলে ৩০০ থেকে ৪০০ ক্যালোরি সহজেই ঝরানো যায়। এবং এক্ষেত্রে যত দ্রুতগতিতে হাঁটা যায় প্রতি মিনিটে তত বেশি ক্যালরি পুড়বে। অর্থাৎ ধীরে ধীরে হাঁটলে প্রতি মিনিটে  যে পরিমাণ ক্যালরি পুড়বে তার থেকে একটু বেশি গতিতে হাঁটলে এর প্রায় দ্বিগুণ ক্যালরি পুড়রে। এবং যদি দৌড়ানো বা জগিং করার ক্ষেত্রে তারচেয়েও বেশি  ক্যালরি পোড়ানো সম্ভব । 

কেমন গতিতে হাঁটবেন

অধিক ক্যালরি ঝরাবেন ভেবে প্রথমেই অনেক দ্রুত গতিতে হাঁটা শুরু করা উচিত নয়। প্রথমে ধীরে ধীরে হাঁটা শুরু করার পর আস্তে আস্তে গতি বাড়াতে হবে। শরীরের সঙ্গে তাল মিলিয়ে যতটুকু পারা যায় গতি বাড়াতে হবে। 

সাথে ব্যায়ামও যুক্ত করুন

হাঁটা শুরু করার কিছুদিন পর যখন আপনি অভ্যস্ত হয়ে যাবেন তারপর ধীরে ধীরে কিছু ব্যায়াম করা শুরু করতে পারেন।  একসঙ্গে হুট করে অনেকগুলো ব্যায়াম করা শুরু করা উচিত নয়। এতে হিতের বিপরীত হতে পারে।  এক্ষেত্রে প্রথমে কিছুদিন হাঁটার সঙ্গে একটু করে দৌড়ান বা একটু করে যোগব্যায়াম করতে পারেন। এগুলোতে একঘেয়েমি চলে আসলে  কিছুদিন হাঁটার পাশাপাশি  টেনিস বা ব্যাডমিন্টন খেলা শুরু করতে পারেন।