Skip to content

৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাজগোজে আর মানা নেই মার্কিন নারী সেনাদের!

লম্বা চুল রাখা, লিপস্টিক ব্যবহার, নখকে বিভিন্ন রঙে রাঙানো,  কানে দুল পরা। যেকোন নারীর কাছে ব্যাপারগুলো খুব স্বাভাবিক মনে হলেও মার্কিন নারী সেনাদের কাছে খুব একটা স্বাভাবিক ব্যাপার নয়।  কারণ তাদের সাজগোজে ছিলো অনেক বিধিনিষেধ। 

 

তবে তাদের সাজগোজের ব্যাপারে আর নেই তেমন বিধিনিষেধ৷ পূর্বের তুলনায় অনেক বেশি সাজগোজ করতে পারবেন মার্কিন নারী সেনারা।  
মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দফতর পেন্টাগন মঙ্গলবার  সেনাসদস্যদের সাজসজ্জা–সংক্রান্ত নীতিমালা সংশোধন  হওয়ার ঘোষণা দেয়।

 

নতুন নিয়মে চুল বড় রাখা, নেলপলিশ  – লিপস্টিক ব্যবহার,  চুলে রং করা থেকে শুরু আরো অনেক ধরনের সাজগোজের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে চুলে রং করার ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক মৃদু রঙকে প্রাধান্য দিতে বলা হয়েছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, গোলাপি, সবুজ ও নীল রঙ চুলে লাগানো যাবে না।

আগে নারী সেনাদের লম্বা চুল বেঁধে রাখতে হতো। এতে হেলমেট পরতে গেলে তাঁদের অসুবিধা হতো। নতুন নীতিমালায় তা পরিবর্তন করা হয়েছে। চাইলে নারী সেনারা লম্বা চুল পনিটেইল করে রাখতে পারবেন। আর প্রশিক্ষণ বা বিশেষ পরিস্থিতিতে চুল বেণি করে রাখা যাবে। চুলে ছোট ছোট বেনি করে রাখার নিয়মটি আফ্রিকান-আমেরিকান নারী সেনাসদস্যদের আবদারে যুক্ত করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, এ ব্যবস্থায় হেলমেট পরতেও কোন সমস্যা হবে না।

 

 

 নতুন নিয়মঅনুযায়ী কানে দুলও পরতে পারবেন নারী সেনারা।  তবে অবশ্যই ছোট দুল পরতে হবে এবং  প্রশিক্ষণ বা যুদ্ধক্ষেত্রে দুল পরা নিষিদ্ধ থাকবে। নেলপলিশ ও লিপস্টিক ব্যবহারের নিয়ম হচ্ছে, কর্মরত অবস্থায়ও এসব ব্যবহার করা যাবে। তবে উজ্জ্বল রঙ ব্যবহার করা যাবেনা। ও হ্যাঁ, চাইলে নখ কিছুটা বড়ও রাখা যাবে।

আবার নারী সেনারা পুরুষ সেনাদের  মতো করে মাথা ন্যাড়াও করে ফেলতে পারবেন। আগে নারীদের জন্য এই নিয়ম প্রযোজ্য ছিল না। কিন্তু এখন থেকে নারীদের ক্ষেত্রেও এ নিয়ম আনা হয়েছে।