Skip to content

৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | মঙ্গলবার | ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

লক্ষণ দেখে নির্ণয় করুন স্কিন ক্যান্সার

স্কিন ক্যান্সারের লক্ষণ দেখে খুব সহজে বুঝা যায়  না। অনেকেই এই লক্ষণগুলোকে নরমাল ব্রণ বা সাধারণ সমস্যা ভেবে গুরুত্ব দেন না। ফলে ডাক্তারের কাছে যেতেও অনেকটা দেরি করে ফেলে।  আর ততক্ষণে ক্যান্সার রূপ নেয় ভয়াবহ আকারে৷ তাই জেনে রাখা উত্তম স্কিন ক্যান্সারের প্রাথমিক লক্ষণগুলো কি কি? 

দীর্ঘ সময় ধরে অতিরিক্ত রোদে ঘোরাঘুরি, অতিরিক্ত মেকআপ ব্যবহার, নিয়মিত মেডিকেল চেকআপ না করানো, ঘন ঘন ব্লিচ করার ও ব্র্যান্ড ছাড়া কসমেটিকস ব্যবহারের ফলে স্কিন ক্যান্সার হতে পারে। 

এসময় যেসব লক্ষণ দেখা দেয়

 
শরীরের ত্বকে কোনো এক জায়গায় গোল দাগ হতে পারে। এমনকি চামড়ার উপরিভাগে কালো, গোলাপি, লাল ও বাদামি ধরনের দাগ দেখা যায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই চামড়ার এ রকম দাগে চুলকানি না জ্বলুনি হয়।

শরীরে তিল বা আঁচিল থাকলে, এর আকার ও রঙে পরিবর্তন হতে পারে।

 

নিচের ঠোঁটের চারপাশে কোনো দাগ দৃশ্যমান হলে, এটি যে কেবল হরমোনজনিত ব্রণ তা নয়, এর বাইরে অন্য কোনো সমস্যাও থাকতে পারে। এটি হজম সমস্যা এবং এনজাইম ফাংশনসংক্রান্ত সংকেতও হতে পারে। এই স্থানে সাধারণত ব্রণ হয় না। সুতরাং দেখতে হবে এটি কীট ও জীবাণু সংক্রান্ত কোনো সমস্যা কিনা। 

 

বয়ঃসন্ধিকাল, ঋতুস্রাব বন্ধ বা অন্য কোনো কারণে প্রায়ই ত্বকে ব্রণ  ওঠে। ব্রণ, চুল বৃদ্ধি কিংবা চুল পড়া অথবা শুষ্ক ত্বকের লক্ষণ এবং হরমোন ভারসাম্যহীনতার কারণে হতে পারে। যদিও এ সমস্যাগুলো চিকিৎসক ছাড়া নির্ণয় করা কঠিন। 

 

পানি শরীরের স্বাভাবিক ক্রিয়া বজায় রাখতে সাহায্য করে। শরীর পানি শোষণ না করলে এটি ত্বকে প্রদর্শন করবে, ত্বক শুষ্ক ও নিস্তেজ হয়ে পড়বে। যদি ত্বক পানি শোষণ করে তবে সাধারণত কোনো দাগ থাকবে না। প্রতিদিন চাহিদা মাফিক পানি পান করুন। এমনকি ফুসকুড়ি, লাল ফোসকা বা ত্বকে এ ধরনের উপসর্গ দেখা দিতে পারে। 

 

তাই এধরণের সমস্যা দেখা দিলে অবহেলা না করে দ্রুত ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে।