Skip to content

৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শীতে ফুলকপির সুস্বাদু বড়া

শীতের সময়ে দেখা মেলে নানা রঙের নানা স্বাদের বিভিন্ন রকম সবজির। পুষ্টিগুণে ভরপুর শীতের সবজির কোনো জুরি নেই। এ সময় সবজির মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ফুলকপি। এই ফুলকপিতে রয়েছে প্রয়োজনীয় পরিমাণে ভিটামিন ‘এ’, ‘বি’ ও 'সি'। ফুলকপিতে কোনো চর্বির মাত্রা নেই। ফুলকপি কোলেস্টেরলমুক্ত যা কিনা আমাদের শরীরের বৃদ্ধি ও বর্ধনের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। আর এই ফুলকপি দিয়েই বানিয়ে নিতে পারেন মুখরোচক খাবার। ফুলকপির বড়া তেমনই একটি সুস্বাদু খাবার। এটি বিকাল কিংবা সন্ধার নাস্তায় খাবারে আনবে নতুনত্ব। চলুন ফুলকপির বড়ার রেসিপিটা এবার জেনে নেই-

 

উপকরণ

 

১। ফুলকপি— ১টি

২। অনিয়ন পাউডার— ১ চা চামচ

৩। গার্লিক পাউডার— আধ চা চামচ

৪। নুন— স্বাদ মতো

৫। মৌরি গুঁড়ো— আধ চা চামচ

৬। হিং— এক চিমটে

৭। ধনে পাতা— আধ মুঠো

৮। কাঁচা লঙ্কা— ৩-৪টি

৯। বেসন— আধ কাপ

১০। কালো জিরে— আধ চা চামচ

১১। বেকিং সোডা— এক চিমটে

১২। হলুদ গুঁড়ো— এক চিমটে

১৩। চাট মশলা— ১ চা চামচ

১৪। তেল— পরিমাণমত

 

 

প্রণালী

 

ফুলকপি পিস পিস করে কেটে গরম জলে সামান্য নুন দিয়ে তাতে সেদ্ধ করে নিন। সেদ্ধ ফুলকপির টুকরো তুলে জল ঝরিয়ে রাখুন। একটি বাটিতে সেদ্ধ ফুলকপি রেখে তার সঙ্গে এক এক করে অনিয়ন পাউডার, গার্লিক পাউডার, নুন, মৌরি গুঁড়ো, কাঁচা লঙ্কা কুচি, মিহি ধনে পাতা কুচি, চাট মশলা মিশিয়ে রাখুন।

 

এবার অন্য একটি বাটিতে বেসন, এক চিমটে হিং, হলুদ গুঁড়ো, কালো জিরা, বেকিং সোডা আর নুন মিশিয়ে নিন। তাতে জল দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। একটি প্যান নিয়ে তাতে তেল গরম করে নিন। মশলা মেখে রাখা ফুলকপির একটি করে টুকরো নিয়ে বেসনের গোলায় ডুবিয়ে তেলে ছাড়ুন।

 

লালচে করে বড়া ভেজে তুলে নিন। ভাজা হয়ে গেলে উপর থেকে চাট মশলা ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।