Skip to content

২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | বৃহস্পতিবার | ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নতুন বছরের শুভেচ্ছা

দেখতে দেখতে বছর শেষ। নতুন বছরে পা রাখছে বিশ্ব। সবাইকে জানাই নতুন বছরের শুভেচ্ছা। সামনে এগিয়ে যাবার প্রতিশ্রুতি নিয়ে শুরু করতে চাই আমরা এই নতুন বছরকে। 

করোনা মহামারীর মধ্য দিয়েই ২০২০ পেরিয়ে ২০২১ এ চলে এলাম আমরা। সত্যিকারে বলতে বৃহদাকারে দেখতে গেলে ২০২০ আমাদের কাছে খুব বেশি ভালো ছিলোনা। এর কারণ পৃথিবী জুড়ে করোনা ভাইরাসের আক্রমণ। করোনা মহামারী পুরো পৃথিবীকেই প্রায় কাবু করে দিয়েছে।  

নতুন বছরে নতুন আশার সঞ্চার হচ্ছে সবার মনে। আর তা হলো করোনার ভ্যাকসিন। সবাই আশা করছে নতুন বছরে ভ্যাকসিন বিতরণের মাধ্যমে পৃথিবী আবার সুস্থ হয়ে উঠবে। সব স্বাভাবিক হয়ে আসবে। নতুন বছরে নতুন বিশ্বকে আশা করছে সবাই।

বাংলা নববর্ষের মতো আনন্দ-উচ্ছ্বাসের জায়গা তৈরি করে না খ্রিস্টীয় নববর্ষ। ইংরেজি নতুন বছরকে বরণ করে নিতে কতো আয়োজন সবার। যদিও করোনার কারণে সকল আয়োজনই থাকবে সীমিত পরিসরে। তবুও নতুন বছরের স্বাগতমকে ঘিরে থাকবে নানা পরিকল্পনা। 

অনেকেরই তাদের প্রিয়জনদের কাছে অনলাইনে নতুন বছরের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো শুরু হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের নতুন বছর আগমনের উৎসব পালন করতে হচ্ছে অনলাইনে। প্রিয়জনদের থেকে দূরে থেকেই অনেককে কাটাতে হচ্ছে বছরের প্রথম দিন।

নতুন বছরে সবার প্রতিজ্ঞা হোক কেবল নিজের জন্যই না, বরং পরিবারের জন্য ও দেশের জন্যও। নিজেদের পাশাপাশি যেন আমরা পরিবারের জন্য ও দেশের জন্যও কিছু করতে পারি এই প্রতিজ্ঞা থাকতে হবে নতুন বছরে। দেশকে সব অপরাধ থেকে মুক্ত রাখার প্রচেষ্টার শপথ নেয়া উচিত নতুন বছরে। নতুন বছরের সূচনায় আনন্দের সঙ্গে দীপ্ত চেতনায় সবার শপথ হোক, দেশের কল্যাণে নিয়োজিত থেকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবো সবাই।

সময় এসেছে এবার নতুন করে পেছনের সকল দুঃখ বেদনা ভুলে নতুন বছর ২০২১ কে সাজিয়ে তোলার। সকল দুঃখ, কষ্ট, অপ্রাপ্তি, হারিয়ে যাওয়া, ব্যর্থতা, না পাওয়া সকল কিছু ভুলে জীবনকে শুরু করতে হবে নতুন করে নতুন বছরের সাথে। নতুন বছরে যেনো সবাই সুখে থাকে- এই প্রত্যাশা নিয়ে সকলকে নতুন বছরের প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানাই। শুভ নববর্ষ।