Skip to content

২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ত্বকের যত্নে ময়েশ্চারাইজার

সুস্থ ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজারের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ত্বকের যত্নে ময়েশ্চারাইজার যুগ যুগ ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। শুষ্ক ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজারের কোনো বিকল্প নেই। আর শীতে যেকোনো ত্বকের জন্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার আবশ্যক।

 

ময়েশ্চারাইজারের প্রধান কাজ হলো শুষ্ক ত্বককে আদ্রতা প্রদান করা। শুষ্ক ত্বকের বিশেষ খেয়াল নিয়ে থাকে ময়েশ্চারাইজার। ময়েশ্চারাইজার ত্বককে সুস্থ রাখে যাতে বাইরের ধুলাবালি সহজে ত্বকের কোনো ক্ষতি করতে না পারে। ত্বকের শুষ্কতা-রুক্ষ্মতা রোধ করে এবং ত্বক মসৃণ ও কোমল হয়।  ময়েশ্চারাইজার ছাড়া আমাদের ত্বক সতেজতা হারায় এবং রূক্ষ হয়ে ওঠে। মুখের যেকোনো সমস্যায় ময়েশ্চারাইজার অসাধারণ কাজ করে। তবে অবশ্যই ত্বকের ধরন বুঝে ময়েশ্চারাইজার বা লোশন ব্যবহার করা উচিত।

 

ডেইলি স্কিন কেয়ারে ময়েশ্চারাইজারের কাজ

 

 

১. ময়েশ্চারাইজার ত্বকের শুষ্কতা রোধ করে: আবহাওয়া শীতল হোক বা গরম, এসির ঠাণ্ডা হোক বা ঘরের নিজস্ব তাপমাত্রা, ইত্যাদি নানা কারন আমাদের ত্বকের আর্দ্রতা শুষে নেয়। ত্বক হয়ে ওঠে শুষ্ক। ময়েশ্চারাইজার আমাদের ত্বকের এই হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। পাশাপাশি ভবিষ্যতের স্কিন সম্পর্কিত নানা ক্ষতি রোধে সহায়তা করে।

 

২. বয়েসের ছাপ কমায়: ড্রাই স্কিনের মানুষদের তুলনামূলকভাবে তাদের অয়েলি স্কিনের মানুষদের তুলনায় বয়সের ছাপ বা বলিরেখা কিন্তু খুব দ্রুত পড়ে। তাই সমস্যা হওয়ার আগেই সমাধানে কাজ করাই বুদ্ধিমানের কাজ। নিয়ম মেনে স্কিন কেয়ারে রুটিনে শুধুমাত্র এই ময়েশ্চারাইজার যুক্ত করার মাধ্যমে ভবিষ্যতের অনেক বড় বড় সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন নিমিষেই। হাইড্রেটেড ত্বক আসলে কম বয়েসের ঝলক বজায় রাখে। স্কিন যদি এখন থেকেই হাইড্রেটেড থাকে সঠিক ভাবে তাহলে মুখে বয়েছের ছাপ বা বলিরেখা সহজে দেখা দেবে না। যা স্কিন ময়শ্চারাইজেশনের মাধ্যমে করা সম্ভব।

 

৩. ব্রণ দূর করে: তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণর সম্ভাবনা বেশি। তৈলাক্ত-ঝুঁকিপূর্ণ ত্বকে আরও আর্দ্রতা যুক্ত করা আশ্চর্য বলে মনে হতে পারে আপনার। তবে বাস্তবে এই আর্দ্রতা যুক্ত করা স্কিনের জন্য প্রয়োজন। ত্বক শুষ্ক হয়ে গেলে এটি আপনার গ্রন্থিগুলিকে আরও তেল তৈরির জন্য একটি বার্তা পাঠায় যা আপনার ছিদ্রগুলি আটকে রাখতে পারে এবং ব্রেকআউট তৈরি করতে পারে। সুতরাং, যদি ত্বক সঠিকভাবে হাইড্রেটেড হয় তবে এটি প্রয়োজনের তুলনায় আরও বেশি তেল উৎপাদন থেকে বিরত রাখতে সহায়তা করতে পারে। 

 

৪. সানট্যান বা সানবার্নের মত কঠিন সমস্যার সমাধান করে: সানবার্ন থেকে বাঁচতে সূর্য সুরক্ষাযুক্ত ২-ইন-১ ময়েশ্চারাইজারের ব্যবহার অবশ্যই করুন। এটি একদিকে আপনার ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখবে। অন্যদিকে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে স্কিনকে রক্ষা করবে। তবে এক্ষেত্রে খেয়াল রাখবেন সূর্য সুরক্ষাযুক্ত ২-ইন-১ ময়েশ্চারাইজারই যেন ব্যবহৃত হয়।

 

৫. স্কিনকে স্মুদ বা প্রশমিত রাখা: স্কিনের হাজার একটা সমস্যার মধ্যে অন্যতম হল লালচে ভাব, চুলকানি, র‍্যাসের মত সমস্যা। স্কিন রুক্ষ থাকলে এইগুলো বেশি করে প্রকট হয়। ত্বক স্মুদ বা প্রশমিত থাকলে এগুলো দেখা দেয় না। তাই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের দ্বারা এই ধরনের সমস্যা থেকে দূরে থাকতে পারবেন অনায়াসে।