Skip to content

১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মহানুভবতার পুরষ্কার মিললো সেই খুকির, পেলেন জয়িতা পুরষ্কার!

সালটা ২০০৯।  একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের দৌলতে সামনে আসে মহানুভব এক নারীর লড়াই।  সে যাত্রায় খুব বেশি জনগণের কাছে পৌঁছতে না  পারলেও।  দীর্ঘ কয়েক বছর সোশাল মিডিয়ার বদৌলতে চলতি বছর ভাইরাল হয় রাজশাহীর একমাত্র নারী পত্রিকা বিক্রেতা জোহরা দিল আফরোজ খুকি। যিনি শুধু নিজের জন্য উপার্জন করেননা।  উপার্জিত অর্থ দিয়ে যথাসাধ্য চেষ্টা করেন অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর। 

 

সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর এখন পর্যন্ত অনেকেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তার দিকে। এমনকি সাহায্য পেয়েছেন প্রধান মন্ত্রীর তরফ থেকেও।  পেয়েছেন নগদ সাহায্য  এবং বাড়িও সংস্কার করে দিয়েছেন  জেলা প্রশাসন। বলার আর বাকি থাকেনা যে এসবই তার মহানুভবতারই পুরস্কার।  এবার তার পুরষ্কার এর খাতায় জমা হলো 'জয়িতা' পুরষ্কার। 

 

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘জয়িতা’ পুরস্কারের জন্য রাজশাহী মহানগর ও জেলায় এবার ১০ জয়িতাকে সম্মাননা দেওয়া হয়। তার মধ্যে একজন জোহরা দিল আফরোজ খুকি। 
যাদেরকে পুরস্কার দেয়া হয় তাদের মধ্যে সবাই অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী, শিক্ষা ও চাকরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী, সফল জননী, নির্যাতনের বিভীষিকা কাটিয়ে সফল এবং সমাজ উন্নয়নে যে নারী অসামান্য অবদান রেখেছেন, তারাই নির্বাচিত হয়েছেন এবছরের জয়িতা। নির্যাতনের বিভীষিকা কাটিয়ে সফল এবং সমাজ উন্নয়নে অবদান রাখায় রাজশাহীর জোহরা দিল আফরোজ খুকিকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।

 

 পুরস্কৃতদের হাতে  ক্রেস্ট, সম্মাননা ও সনদপত্র তুলে দেন জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল জলিল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ শরিফুল হক।
 বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সমাজসেবী শাহিন আক্তার রেনী, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. তানজিমা জোহরা হাবিব ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শবনম শিরিন।