Skip to content

১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | বৃহস্পতিবার | ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ডায়াবেটিস রোগীদের কফি খাওয়া কি নিরাপদ

সকালে ঘুম থেকে উঠে হাতে এক কাপ গরম কফি হলে মন্দ হয় না। অনেকে তো কফি ছাড়া সকালটা কল্পনাই করতে পারে না। কফি ছাড়া সারাদিন কিভাবে কাটবে এই চিন্তাই থাকে অনেকের। কিন্তু আপনি যদি হয়ে থাকেন ডায়াবেটিস এর রোগী তাহলে কফি হতে পারে মারাত্মক ক্ষতিকর আপনার জন্য। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য একটা চার্ট আছে তাদের খাবার মেইনটেইন করে খাওয়ার জন্য।

কিন্তু চা,কফি পান করার বিষয়ে কোন ধরা বাধা নিয়ম নেই বললেই চলে।ডায়াবেটিস রোগী যদি কফি খায় তাহলে তার শরীরের ইনসুলিন উৎপাদন কমে যায়।এতে করে গলা শুকিয়ে যায় এবং শরীরে ক্লান্তি ভাব চলে আসে।

ইনসুলিন হলো অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন যা কিনা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের ভিতরে প্রবেশ করতে বাধা দেয়। যদি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রিত না হয় তবে কিডনিতে সমস্যা হতে পারে।

গবেষণায় জানা গেছে, যারা ডায়াবেটিক এর রোগী তারা যদি ব্ল্যাক কফি খায় তাহলে তাদের শরীরে কোনো ধরনের কোনো সমস্যা দেখা দেয় না। কিন্তু যদি দুধ, চিনি, ক্রিম ইত্যাদি ব্যবহার করে কফি বানানো হয় তাহলে সুগার এর লেভেল ভারসাম্যহীন হতে পারে এবং ইনসুলিনের তৈরি হওয়া কমে যেতে পারে।

কফিতে আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট।যা মস্তিষ্কের কার্যক্রম সঠিক ভাবে সঞ্চালন রেখে জ্বালা-পোড়া কম করে। যা শরীরের মারাত্মক ক্ষতি করে। যার কারণে খুব জলদি মানুষ বুড়ি হয়ে যায়।ডায়াবেটিক রোগীদের যদি কফি খেতেই হয় তাহলে সেটা হতে হবে খুবই পরিমাণ মতো এবং মাত্রায় কম। যদি বেশি খাওয়া হয় তাহলে উচ্চ রক্তচাপ বেড়ে যেতে পারে।

ডায়াবেটিস রোগীদের কফি খাওয়ার ক্ষেত্রে ব্লাক কফি খেতে বলা হয়েছে তাই যতটা সম্ভব দুধ,চিনি দিয়ে কফি খাওয়া পরিহার করতে হবে। আর তা না হলে পরিমাণে খুবই সামান্য খেতে হবে।

অনন্যা/এসএএস