Skip to content

১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | বৃহস্পতিবার | ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তাজা মাছ চিনবেন কিভাবে

সপ্তাহ খানেক হলো ঈদের ছুটি শেষ। কোরবানি ঈদ মানেই তো মাংস ছাড়া অন্য কিছু খাওয়া হয় না। তাই এখন মাংসের পরিবর্তে খাবারের তালিকায় যোগ হচ্ছে মাছ, শাক-সবজি। শাক-সবজি ভালোভাবে দেখে-শুনে কেনা গেলে ও মাছ কিনতে গিয়ে ঠকতে হয় ক্রেতাদের।

সেক্ষেত্রে বাজারে ফরমালিন ওয়ালা মাছকে ভালো তাজা মাছ বলে বিক্রি করছে এই মাছ ব্যবসায়ীরা। অনেকেই তাই ফরমালিন যুক্ত মাছকে তাজা মাছ ভেবে কিনে আনছে বাজার থেকে। এতে যেমন ক্রেতারা ঠকছে প্রতিনিয়ত, তেমনই ব্যবসায়ীরা জিতে যাচ্ছে ফরমালিন যুক্ত মাছ বেচে।

আর তাই আজ আমরা জানবো, কিভাবে ফরমালিন যুক্ত মাছ চিনতে পারবেন তার কৌশল:

তাজা মাছ চেনার একমাত্র উপায় হলো মাছের চোখ। যতই ফরমালিন দেওয়া হোক না কেন, তাজা মাছের চোখ দেখলেই তা বুঝতে পারবেন। ফরমালিনের কারণে মাছের চোখ হয়ে যায় ফ্যাকাসে, ঘোলাটে। সেক্ষেত্রে তাজা মাছের চোখ থাকে একদম জীবন্ত আর স্বচ্ছ। তাই মাছের চোখ দেখেই চিনে নিন তাজা মাছ ।

তাজা মাছ থাকবে একদম টাটকা। মাছ কেনার সময় চাপ দিয়ে যদি লক্ষ করেন যে মাছ শক্ত তাহলে বুঝবেন, এটি ফ্রিজে রাখা মাছ । আর যদি মাছ চাপ দেওয়ার পর নরম দেখায়, তাহলে বা একদম ভেতরে চলে যায়, তাহলে বুঝবেন পচে গেছে মাছ, আর টাটকা হওয়ার তো কথাই নেই। আর তাজা মাছ সব সময়ই চাপ দিয়ে দেখলে একটু নরম মনে হবে। যা খুবই সামান্য, তখন বুঝবেন এটি তাজা মাছ।

তাজা মাছের কানকো থাকবে একদম রক্ত কালার, একটু পিচ্ছিল রকমের। কিন্তু এখন মাছ ব্যবসায়ীরা এই কানকো তেও ব্যবহার করছে লাল রঙ তাই বুঝার উপায় থাকে না। তাই এই কানকো না দেখেই মাছ কেনা ভালো।

তাজা মাছ থাকবে একদম চকচকে রুপালি রঙের। ফরমালিন ব্যবহার করলে হবে অন্যরকম রঙ। বিশেষ করে সুপার শপগুলোতে দেখা যায় অনেক দিনের পুরানো মাছ। কেননা তাদের মাছের গায়ের রঙ থাকে হলদেটে টাইপের। যা কিনা অনেক দিনের পুরনো মাছ ।তাই ভালো ভাবে দেখে বুঝে কিনতে হবে মাছ।

বাজে গন্ধ ছড়ানো মাছ কেনা থেকে দূরে থাকুন। কেননা তাজা মাছের গন্ধ হয় স্বচ্ছ পানির মতো বা অনেক টা শসার রসের মতো। আর যদি মাছ সমুদ্রের হয়ে থাকে,তাহলে এক্ষেত্রে মাছের গন্ধ হবে সমুদ্রের ।

চিংড়ি মাছ তাজা চেনার উপায় এক্ষেত্রে ভিন্ন। চিংড়ির তাজা ভাব চেনা যায় এর খোসা দেখে। খোসা যদি মোটা হয় এবং একটু ক্রিসপি টাইপ হয়, তাহলে তাজা। নরম খোসাওয়ালা চিংড়ি মাছ ভালো হয় না।

জিয়ল মাছসহ অন্য মাছ যেমন শিং, মাগুর, শোল ইত্যাদি কিনার ক্ষেত্রে ও সতর্কতা মেনে চলুন। যে মাছ ট্রেতে লাফালাফি করবে বা জীবিত সেই মাছই কিনবেন। ভেতর থেকে বেড় করে দেওয়া মাছ তাজা হয় না। তাই এই রকম মাছ কেনা থেকে দূরে থাকুন।

এই কয়েকটা বিষয় মাথায় রাখলে তাহলে আর মাছ বিক্রেতারা আপনাকে ঠকাতে পারবে না। ফলে আপনিও ভালো, তাজা মাছ কিনতে পারবেন।