Skip to content

১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | বৃহস্পতিবার | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জবিতে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ দিবস পালন

নানা কর্মসূচির মাধ্যমে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ দিবস পালন করেছে আঠারো প্রভা, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার লাগিয়েছে আঠারো প্রভার সদস্যরা। এরপরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন চত্বরে আঠারো প্রভার সদস্যরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে যৌন হয়রানি প্রতিরোধের ব্যাপারে সচেতন হওয়ার আহ্বান করেন। এছাড়া নারীদের অধিকার নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করা পাক্ষিক অনন্যা ম্যাগাজিনের ভূমিকা তুলে ধরেন।

পরবর্তী সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সভা করেন আঠারো প্রভার সদস্যরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আঠারো প্রভার কার্যকরী কমিটির সদস্যরা।

আঠারো প্রভা, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য জান্নাতুল ফেরদৌস বিন্তী বলেন, বিশেষ করে বাংলাদেশে নারীদের অধিকার নিয়ে কাজ করে আসছে পাক্ষিক অনন্যা। নারীদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণার আস্থাভাজন নাম অনন্যা। কোনো নারী এখন থেকে যৌন হয়রানির শিকার হলে আমরা তার প্রতিবাদ করবো। আমরা চুপ করে থাকবো না। অনন্যা নারীদের জন্য একটি অনন্য প্ল্যাটফর্ম।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সমাজে নারী প্রতিটি ক্ষেত্রেই যৌন হয়রানির শিকার হয়ে আসছে। গণপরিবহন, কর্মক্ষেত্র, পরিবার, রাস্তাঘাটে নারী বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হন। আমাদেরকে এর বিরুদ্ধে একাট্টা হতে হবে।

সংগঠনের আহ্বায়ক রেনেকা আহমেদ অন্তু বলেন, যৌন হয়রানি বর্তমানে মারাত্মক রূপ ধারণ করেছে। পারিবারিক সচেতনতাই পারে এই সমস্যার সমাধান করতে। আমাদের জন্মের পর প্রথম শেখার জায়গা পরিবার। যেখান থেকে সুশিক্ষা না পেলে পরবর্তী সময়ে মানুষ এসব অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ে। সন্তানদের দিকে বাবা-মায়ের সঠিক নজর থাকলে তাদের বিপথগামী হওয়ার প্রবণতা রোধ করা সম্ভব।

এসময় আঠারো প্রভা, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সমন্বয়ক আহসান জোবায়ের উপস্থিত ছিলেন।

অনন্যা/এআই

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ