Skip to content

২২ মে, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চুলের যত্নে চা পাতা

চুলের যত্নে চা পাতা

সারাদিনের শত ক্লান্তিবোধকে কাটিয়ে শরীরকে সতেজ করে তুলতে এক কাপ চা-ই যথেষ্ট। তবে চায়ের ব্যবহার এখানেই শেষ নয়। চুলের যত্নেও চা দারুণ কাজ করে। মানব শরীরেও চায়ের বেশ প্রভাব রয়েছে। চা-এ রয়েছে ভিটামিন সি, ভিটামিন-ই। আর রয়েছে প্যানথেল। যা চুলের বৃদ্ধি, চুল পড়া রোধ, চুলকে ঝলমলে করাসহ বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করতে সাহায্য করে।

চুলের উজ্জ্বলতার জন্য চায়ের লিকার দিয়ে কন্ডিশনারও বানিয়ে নিতে পারেন। চা পাতা ফুটিয়ে গরম করে নিন। তারপর ঠাণ্ডা করে ছেঁকে লেবুর রস দিয়ে কন্ডিশনার হিসেবে ব্যবহার করুন। নিয়মিত ব্যবহারে চুল হবে ঝলমলে।

অনেকের চুল ভেঙে যায়। এ সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে ব্যবহার করতে পারেন ব্ল্যাক-টি। যাদের চুলে উজ্জ্বলতা নেই, উস্কখুস্ক, তারাও এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন চায়ের লিকার ব্যবহারে। দুই ক্ষেত্রেই চায়ের লিকার চুলে দিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিতে হবে। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে পরিষ্কার করে ফেলতে হবে।

চুল পড়া রোধ ও চুলের বৃদ্ধিতে কাজ করে চায়ের লিকার। চা পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে নিতে হবে। এরপর এই পানি চুল ও মাথার তালুতে স্প্রে করতে হবে। নিয়মিত করলে চুল পড়া কমবে ও চুলের বৃদ্ধি ভালো হবে।

অনেকের কম বয়সে চুল পাকতে শুরু করে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চায়ের লিকার ব্যবহার করতে পারেন। পাকা চুলে কালো রঙ পেতে চাইলে চা পাতার সঙ্গে হেনার রস মিশিয়ে প্যাক করে নিন। এই প্যাক চুলে লাগিয়ে আধাঘণ্টা রেখে দিন। চুল শুকিয়ে এলে শ্যাম্পু করে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

শীতকালে অনেকের চুলে খুশকি দেখা যায়। তারা চাইলে চা পাতার প্যাক করে নিতে পারেন। এই প্যাক নিয়মিত ব্যবহারে চুলের খুশকি দূর হবে। ব্যবহার করা চায়ের পাতা ফেলে না দিয়ে পরিষ্কার পানিতে ধুয়ে ফেলুন। এরপর ঠাণ্ডা করে চুলে ব্যবহার করুন। এতে চুলের খুশকি দূর হবে এবং চুল উজ্জ্বল হবে।

অনন্যা/এসএএস