Skip to content

৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | শনিবার | ২২শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নানান পোশাকে নানান জুতা

নারী-পুরুষের উভয়ের পোশাকের সঙ্গে জুতার স্টাইলের ধরণ ভিন্ন। সেক্ষেত্রে জুতা আরামদায়ক হওয়ার দিকে খেয়াল রাখতে হয়। ক্লাস, ইন্টারভিউ, কোথাও ঘুরতে যাওয়া বা প্রতিদিনের অফিসে পোশাক যেমন ভিন্ন তেমনই পায়ের জুতা হয়ে থাকে ভিন্ন রকমের। যখনই জুতা পরবেন পোশাকের সঙ্গে তা মানিয়ে নিন।

ফর্মাল পোশাকে সাধারণত আমরা ফর্মাল বা মানানসই জুতা পরে থাকি। জুতা পোশাকের রঙ বা স্টাইলের একটি বড় অনুষঙ্গ। এটি ব্যক্তিত্বের বহিঃপ্রকাশ ঘটায়। সামাজিক অনুষ্ঠানে পোশাকের সঙ্গে মানানসই জুতা পরিধান করা হয় যেমন বিয়ে, পার্টি ইত্যাদি যেখানে সাজ-সজ্জা গুরুত্বপূর্ণ।

সাধারণত মেয়েরা যখন এসব জায়গায় যায় তখন পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে জুতো পড়ে। যেমন শাড়ি, সালোয়ার কামিজ পরলে সেক্ষেত্রে হিল জুতা ভালো লাগবে। আবার শার্ট-প্যান্ট কিংবা ফতুয়া পরলে যেকোনো ধরণের জুতা মানায়। হাইহিলের সঙ্গে ওয়েস্টার্ন পোশাক পরতে পারেন। অতিরিক্ত লম্বা জুতার সঙ্গে ছোট পোশাক মানায়। ঢিলেঢালা পোশাকের সঙ্গে সু বা স্যান্ডেল সু, দুই ফিতার জুতা পরা যেতে পারে।

ক্যাজুয়াল পোশাকের ক্ষেত্রে মানানসই স্পোর্টস স্নিকার্স, লোফারস, জেলস বুট। যারা ক্যাজুয়াল ফ্যাশন পছন্দ করেন, তাদের জন্য লোফার বেশি উপযোগী। তবে হোয়াইট স্নিকার্স সবকিছুর সঙ্গে মানিয়ে যায়। লোফারের সুবিধা হচ্ছে এটি অন্যান্য জুতার তুলনায় বেশ আরামদায়ক। মোজা ছাড়াই খুব সহজে পায়ে দেওয়া যায়। ফিতা বাঁধারও ঝামেলা নেই বলে হুটহাট করেই পায়ে দিয়ে বের হওয়া যায়।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ