Skip to content

২১শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বর্ষায় বইয়ের যত্ন

বই আমাদের প্রকৃত বন্ধু। জ্ঞান অর্জনের রসদ বই। অনেকে ভাবে এখনকার সময় বই পড়ার মানুষ অনেক কমে গেছে। তবে ডিজিটাল ও টেকনোলজিক্যাল নির্ভরশীল যুগে এখনো এমন অনেক বইপ্রেমী খুঁজে পাওয়া যাবে, যাদের কাছে বই শুধু প্রিয় নয়, বই হলো ভালোবাসা। বিভিন্ন ই-বুক অনলাইন থেকে প্রাপ্ত পিডিএফ ভার্সন করে অনেকেই বই পড়ে। কিন্তু হাতে রেখে বই পড়ার যে শান্তি, বই ছোঁয়ার মধ্যে যে অন্যরকম একটা ভালো লাগা, তা আসলে অনুভব করা যাবে না ডিজিটাল বুকের মাধ্যমে। 

বই পড়তে ভালোবাসেন কিংবা পছন্দ করেন, কিন্ত সেই বইটা আপনি কতটা যত্নে রাখছেন বা ঠিকভাবে রাখতে পারছেন তো? নাকি এখানে সেখানে বই ফেলে রাখছেন অযত্নে পড়ে আছে? আর বর্ষায় তো বউয়ের বাড়তি যত্ন নেওয়াটা খুব জরুরি। কারণ বর্ষার স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে যেকোনো জিনিসই ড্যাম হয়ে যায়। বই তো আরও দ্রুত ড্যাম হয়। কারণ বইয়ের কখনোই প্রতিদিন যত্ন নেওয়া হয় না। নিজেদের যেমন যত্নের প্রয়োজন, তেমনি আমাদের জীবনের সঙ্গে জড়িত থাকা প্রতিটা জিনিসেরই যত্নের প্রয়োজন। বই তার থেকে কোনোভাবেই বাদ যাবে না। তাই বইকে এমন জায়গায় রাখুন—যেন বই যত্নে থাকে। পাশপাশি নিজের চোখে সুন্দর লাগে এবং বই সাজিয়ে রাখার মাধ্যমে ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়। তাই নিজের মনমতো ডিজাইনে তৈরি করুন একটি বুক সেলফ। যাতে থাকবে নান্দনিকতার ছোঁয়া। পাশাপাশি আপনার রুচি এবং ঘরের পরিবেশের দ্বিগুণ পরিবর্তন প্রকাশ পায়। সেখানে আপনি সাজিয়ে রাখুন আপনার পছন্দমত বই। বুক সেলফে মনমতো সাজিয়ে নিন। কোথায় কোন সিরিজ সাজাবেন, কোথায় কোন লেখকের বই থাকবে, তা আপনার পছন্দমত সেলফে গুছিয়ে রাখুন। যাতে করে পড়ার সময় খুব সহজেই খুঁজে পাওয়া যায়।

বর্ষায় বই ও বুক সেলফের যত্ন যেভাবে নেবেন

স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া হয়ে থাকে বর্ষায় রোদ না ওঠার কারণে। এ সময় ঘরে পোকামাকড়ের সংখ্যা অনেক বেশি বেড়ে যায়। আর পোকামাকড়গুলো অনেক ক্ষেত্রেই বইয়ের আনাচে-কানাচে বাসা বাঁধে। অনেক সময় বইয়ের পাতা কেটে বা ছিঁড়ে যায়। তাই নিয়মিত বুকসেলফ এবং বইয়ের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার দিকে খেয়াল রাখতে হবে শুকনা কাপড় দিয়ে বই ও বুক সেলফ ভালো ভাবে মুছতে হবে। ভেজা ভেজাভাবে বুকসেলফ ও বইয়ের ক্ষতি হতে পারে। 

বর্ষায় রোদে বই রেখে দেওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়। কারণ বর্ষায় যদিও রোদ দেখা যায়, তবু যে-কোনো সময়ই বৃষ্টি হতে পারে। তাই রোদে বই রেখে দেওয়ার মতো ঝুঁকি নেওয়া যাবে না। সেই ক্ষেত্রে বইগুলো বুক সেলফ থেকে নামিয়ে খোলা জায়গায় বিছিয়ে দিতে হবে এছাড়াও শুকনা কাপড় দিয়ে বই এবং বইয়ের পাতাগুলো আলতো করে সপ্তাহে একদিন মুছে নিতে হবে। 

পোকামাকড়ের উপদ্রব থেকে বইকে রক্ষা করা কঠিন হলেও অসম্ভব কিছু নয়। তাই বুক সেলফে নিমপাতা, কর্পূর, ন্যাপথলিন কিংবা কালোজিরা  রাখলে পোকামাকড়ের উপদ্রব অনেক অংশে কমে যাবে। 

বুক সেলফের বাড়তি সৌন্দর্য আনতে সেলফের পাশে একটা ল্যাম্প বা ফুলদানি রাখতে পারেন।  

জিনিস অল্প হোক কিংবা বেশি সুন্দরভাবে  যেকোনো জিনিসকে সাজিয়ে একটি সুন্দর রূপ দিতে পারলেই ঘরে সৌন্দর্য বেড়ে যায় দ্বিগুণ।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ