Skip to content

২১শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিট রসের গুণাবলি

বিট এমন এক সবজি যা সাধারণত কাঁচা সালাদ আকারে খাওয়া হয়। ভেজিটেবল চপেও ব্যবহার করা হয়ে থাকে এটি। তবে, ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে বিটের রস তৈরি করে খাওয়া যায়। বিটের রস স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। বিশেষত এটি ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে সাহায্য করে। বিটের রসের স্বাদ আর উপকারিতা বাড়াতে বিটের সঙ্গে গাজর ও যুক্ত করা যেতে পারে। বিটের রস কেন উপকারী তাই জানাবো আজকের প্রতিবেদনে। 

১. সুস্বাস্থ্য থাকার জন্য দেহের চাহিদা অনুযায়ী রক্ত থাকা প্রয়োজন। শরীরে কখনো রক্তের ঘাটতি পড়লে বিশেষ খাবারে জোর দেওয়া হয়। বিটের রস শরীরে রক্তের ঘাটতি পূরণ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। 

২. ত্বক ও চুল ভালো রাখতে ভূমিকা রাখে এই বিটের রস। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি সমৃদ্ধ বিটের রস ত্বকের ক্ষতি থেকে বাঁচায়। চুল পড়া রোধ করে। 

৩. বিটে রয়েছে ভিটামিন সি, ফাইবার, আয়রন, ক্যারোটিনয়েড, পটাসিয়াম, ভিটামিন বি৯ (ফোলেট), ম্যাঙ্গানিজ, ইলেক্ট্রোলাইট ও আরও অনেক পুষ্টিগুণ। এই সব উপাদানই আমাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয়। 

৪. বিটের রসে থাকা আয়রন আর ভিটামিন সি চুল ভালো রাখে, চুলের বৃদ্ধি ও চুল পড়া রোধ করে। নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে।

৫. অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি গুণ রয়েছে বিটের রসে। এটি শরীরের প্রদাহ দূর করে। ত্বকে ব্রণ ও একজিমার মতো সমস্যাও দূর করে বিট রস। 

৬. শরীরে দিনের পর দিন দূষিত পদার্থ বা টক্সিন জমতে থাকলে নানা রকম রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। বিটের রস প্রাকৃতিক ডিটক্সিফায়ার হিসেবে কাজ করে। এটি শরীর থেকে টক্সিন দূর করে ত্বক পরিষ্কার করে। স্বাস্থ্যও ভালো রাখে।

৭. বিটের রসে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি রয়েছে, যা ত্বকের ক্ষতি কমায়। ত্বকের দাগছোপ, বলিরেখা ও বার্ধক্যজনিত অন্যান্য লক্ষণ কমাতে পারে।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ