Skip to content

৮ই মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ২৫শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুগন্ধি ব্যবহারের নিয়ম

স্নিগ্ধ ভোর, তপ্ত দুপুর, উষ্ণ শীত, এমনকি বৃষ্টি বিকেলেও সুগন্ধির ব্যবহার অপরিহার্য। দিন-রাতের কর্মব্যস্ততা আর ছোটাছুটিতে নিজেকে সতেজ রাখতে সুগন্ধির জুড়ি নেই। সুন্দর গন্ধ মানুষের মনকে ফুরফুরে ও আত্মবিশ্বাসী রাখতে সাহায্য করে। শুধু তা-ই নয়, সুগন্ধি আপনার মন, রুচিবোধ ও ব্যক্তিত্বকে প্রকাশ করে। তাই নিজেকে সতেজ ও তরতাজা থাকতে সুগন্ধি ব্যবহারের বিকল্প নেই। তবে এই গরমে পারফিউম, বডি স্প্রে ও ডিওডোরেন্টের ব্যবহার ও চাহিদা বেড়ে যায় বহু গুণ।

অনেকের আবার শুধু সুগন্ধির প্রতিই বাড়তি ভালোলাগা কাজ করে। তাদের একটা পছন্দের জায়গা বিভিন্ন ধরণের সুগন্ধি নিজের কালেকশনে রাখা। যত কিছুই কালেকশনে রাখুন না কেন এই সব ব্যবহারের নিয়ম এবং কখন কোথায় কোন ধরনের গন্ধ ব্যবহার করতে হবে তা নিয়ে বেশ ছোট ছোট কিছু শর্ত রয়েছে। স্বল্প পরিসরে সেই বিষয়গুলো একটু জেনে নিই।

১- স্থান ও পরিবেশ
অফিসে হালকা ধরনের সুগন্ধি ব্যবহার করতে হয়। আর যেখানে অনেক খোলামেলা বা প্রচুর প্রাকৃতিক বাতাস রয়েছে সেখানে কিছুটা কড়া সুগন্ধি ব্যবহার করা যেতে পারে। আপনার দু-তিন ফুটের বাইরের মানুষ যেন আপনার সুগন্ধি টের না পায় সেটা খেয়াল করুন। বিজ্ঞাপনের মতো পাগলপারা কড়া সুগন্ধি আপনার কাছে ভালো লাগলেও অন্যদের জন্য তা ভীষণ বিরক্তিকর।

২-লিঙ্গভেদে সুগন্ধি
লিঙ্গভেদে সুগন্ধি তৈরি হয়। কেনার সময় কার জন্য কিনবেন জেনে কিনুন। মেয়েদের গন্ধ গুলো একটু কোমল ধরনের হয়ে থাকে আর ছেলেদের গন্ধ গুলো বেশ তীব্র হয়ে থাকে। তাই কেনার ক্ষেত্রে লিঙ্গ দেখাটা জরুরী।

৩- সুগন্ধি কাপড়ে লাগাবেন না
আমরা সাধারণত জামা-কাপড়ের ওপরেই সুগন্ধি লাগিয়ে নিই। আসলে কিন্তু এতে কোন লাভই নেই! কারণ, একটু পরই এ গন্ধ মিলিয়ে যায়, তা সে যত বিখ্যাত ব্র্যান্ডেরই হোক না কেন। কাপড়ের সুগন্ধি লাগানোর আরো একটা খারাপ দিক হচ্ছে দাগ বসে যায়। সুগন্ধি মাখার নিয়ম হল, আপনার চারপাশে স্প্রে করে কিছুক্ষণ সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। তাছাড়া হাতের কবজি, কানের লতি ও ঘাড়েও একটু স্প্রে করে নিতে পারেন। তাহলে গন্ধটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়।

৪- অতিরিক্ত সুগন্ধি মাখবেন না
অনেকেরই অতিরিক্ত মাত্রায় সুগন্ধি মাখার অভ্যাস রয়েছে যদি এই অভ্যাস থেকে থাকে তাহলে পরিত্যাগ করুন। কারণ, আপনার সুগন্ধির ঝাঁঝ অন্যের বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ালে তা আপনার ব্যক্তিত্বের জন্য ক্ষতিকর। এছাড়াও অতিরিক্ত সুগন্ধির গন্ধে মাথা ধরার সম্ভাবনা থাকে।

৫- বদলে নিন
আপনি হয়তো সবসময় একই ধরনের সুগন্ধি ব্যবহার করে অভ্যস্ত। মাঝেমধ্যে অভ্যাসে এবং পছন্দের পরিবর্তন আনুন। আর চেষ্টা করুন পরিবেশ ও প্রকৃতির সাথে সামঞ্জস্য বজায় রেখে সুগন্ধি বেছে নিন। সুগন্ধি হল আত্মপ্রকাশের সবচেয়ে শক্তিশালী ও স্মরণীয় মাধ্যম ।

অনন্যা/ ডিডি

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ