Skip to content

২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ | রবিবার | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আসছে ঈদ: শুরু হোক রূপচর্চার প্রস্তুতি

আর মাত্র কয়েক দিন। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে ঈদ-ঈদ আমেজ। কেনকাটা, সাজসজ্জা নিয়ে ব্যস্ততার শেষ নেই। গত ২ বছর করোনা ভাইরাসের প্রকোপে ঘরবন্দী ঈদ কাটাতে হয়েছে সবাইকে। তাই, এবারের ঈদ নিয়ে প্রস্তুতি বরাবরের তুলনায় একটু বেশিই৷ ঈদের সব আয়োজনের মধ্যে রূপচর্চার বিষয়টি ভুলে গেলে একদমই চলে না।

কেনাকাটা, ঘোরাঘুরির ব্যস্ততায় যদি ত্বকের যত্নের কথাই ভুলে যান, তবে আপনার ঈদের সাজেও তা বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে৷ রোদ, বৃষ্টি, ধুলাবালি মাথায় নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা জ্যামে বসে থেকে ঈদের কেনাকাটা তো সারছেন, সেই সাথে আপনার ত্বক কিংবা চুলের কি অবস্থা হচ্ছে, তার দিকেও খেয়াল রাখুন। এখন থেকেই রূপচর্চা নিয়ে কি শুরু করতে পারেন, তা নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন:

১. সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন:

নিজেরসহ পরিবারের সবার জন্য কেনাকাটা করতে হলে একটু বেশি সময় তো লাগবেই। অনেকের কেনাকাটার চাপ চাঁদরাত পর্যন্তও থাকে। তবে ত্বকের খেয়াল রাখতে গিয়ে কেনাকাটা তো বন্ধ করা যাবে না। তাই, কেনাকাটাসহ যেকোনো কাজে বাইরে বের হওয়ার সময় অবশ্যই সানস্ক্রিনযুক্ত লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করুন।

২. চুল কাটিয়ে নিন:

অনেকেই হয়তো ঈদে নতুন কোনো হেয়ার কাট নেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছেন। নতুন হেয়ার কাট চুলে মানিয়ে যেতে বেশ কিছু দিন সময় লাগে। হুট করে ঈদের আগের দিন চুল কাটালে আপনার চেহারার সাথে বেমানান লাগতে পারে। তাই মহাব্যস্ততার মধ্যে হলেও অল্প কিছু সময় বের করে এখনই চুল কাটিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করে ফেলতে পারেন। এ-ছাড়া চুলে রং করতে চাইলেও এখনি উপযুক্ত সময়।

৩. ঘরোয়া উপায়ে ত্বকের যত্ন নিন:

এই সময়টাতে পার্লারে না গিয়ে ঘরোয়া উপায়ে নিয়মিত ত্বকের যত্ন নিতে পারেন। যেমন- ত্বক তৈলাক্ত হলে গাজর টমেটো এক সাথে ব্লেন্ড করে মুখে লাগিয়ে নিন। ত্বক শুষ্ক হলে শসার রস লাগাতে পারেন। আটার সাথে একটু দুধ মিশিয়ে সমস্ত মুখে লাগিয়ে নিলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে। চালের গুঁড়া বা বেসনও স্ক্র্যাব হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। ভালো কোনো কোম্পানির উপটান বা বেসন, গুঁড়া দুধ, মধু ও ডিমের সাদা অংশ মিলিয়ে প্যাক তৈরি করেও ব্যবহার করতে পারেন।

৪. নিয়মিত চুলের যত্ন নিন:

বাইরে বের হলেই আপনার সঙ্গী হিসেবে রাখুন একটি স্কার্ফ, যা ধুলাবালির হাত থেকে আপনার চুলকে রক্ষা করতে সাহায্য করতে পারবে। এ-ছাড়া, চুল সুন্দর রাখতে নিয়মিত চুল পরিষ্কার করুন। শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই চুলে কন্ডিশনার ব্যবহারের চেষ্টা করুন। এতে করে চুল অনেকটা কোমল ও মসৃণ থাকবে। হাতে সময় থাকলে চুলেও বিভিন্ন ভালো ব্র্যান্ডের প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

ঈদের ৩-৪ দিন আগে চাইলে আপনি পার্লারে গিয়ে রূপচর্চার বন্দোবস্ত করতে পারেন। তবে এখন থেকে ত্বক ও চুলের প্রতি যত্নবান না হলে ঈদের সময় আপনার ত্বক কিংবা চুল সজীব ও প্রাণবন্ত থাকবে না। তাই, এখনই শুরু হয়ে যাক আপনার রূপচর্চার প্রস্তুতি।

অনন্যা/জেএজে