Skip to content

২১শে ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | বুধবার | ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিচ্ছিন্ন কারাগার

বিচ্ছিন্ন কারাগার
বদ্ধ জলাশয়ে কলমিলতার ঠিক ওপরের মাচানে
বিছিয়ে থাকা পুঁইয়ের লতা ডগমগ করছে,
যেন পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান।
ঠিক তার ওপরেই একটি অগোছালো সংসার,
আধভাঙা খিড়কি
দক্ষিণের পাটাতনে বসানো আলনায়
ধুলোয় মোড়ানো চারটে শাড়ি, তিনটে শার্ট
উঠানজুড়ে সবুজ ঘাসের মেলা
অনেকটা তোমার-আমার প্রেম পরবর্তী আকাল।

তিতাস
স্থিরচিত্রে তোমার হাসি দেখতে গিয়ে এক মায়াবিদ্যায় জড়াই
কয়েকটা মুক্তোদানা ঝরঝরিয়ে পড়লে স্রোতস্বিনী তিতাসে
খিলখিলিয়ে হেসে উঠে সে
আমি তখন নীরব পাঠক
পড়তে থাকি শহরের অবোধ বালককে
দ্রৌপদীকে টপকাতে পারি না তাই তোমাতেই সীমাবদ্ধ থাকি।
ঘোর কেটে গেলে বুঝি তিতাস কেমন নিঃশেষ
হয়ে যাচ্ছে তোমার দুঃখ দেখে।

ফ্যান্সি
স্নিগ্ধ বিকেল
সবুজ গালিচায় ‘লাভ সনেটস অব গালিব’
শুভ্র রাজহাঁসের প্যানপ্যানানি
কচুরিপানার আধিপত্য।
পশ্চিমের আকাশে একরাশ গম্ভীর উত্তেজনায় সুনসান নীরবতা
ঠিক তার দক্ষিণের বাড়িটায় বাঁশের সাঁকো
আমার অতীতের এক অদ্ভুত অধ্যায়।

কড়া লিকারে চুমুক দিতেই দেখি সব ধোঁয়াশা।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ