Skip to content

৩রা মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ | শুক্রবার | ২০শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেমন হবে নবমী দশমীর সাজ পোশাক!

বাতাসে ভাসছে পুজোর গন্ধ। পুজো মানে জমপেশ খাওদাওয়া, হৈ-হুল্লোড় আর সাজগোজ তো রয়েছেই। আর সাজসজ্জার জন্য প্রথম দরকার মানানসই পোশাক নির্বচন। পোশাকে পুজোর আমেজ আনতে হলে আপনাকে হতে হবে অনেকটাই বিচক্ষণ।

দেবীর বোধনে পূজা শুরু হয় ষষ্ঠী দিয়ে। পুজো মানেই যেহেতু ঘোরাঘুরি তাই বাইরের আবহাওয়ার সাথে তাল মিলিয়ে পোশাক নির্বাচন করুন। পুজোয় শাড়ির উপরে তো কোনো কথাই নেই। শাড়ি ছাড়াও আপনি সেলোয়ার-কামিজ, কুর্তি এসবও পড়তে পারেন। তবে খুব বেশি গর্জিয়াস কিছু আপাতত না পরলেই ভালো। মোটকথা আপনার আরামদায়ক পোশাক ও সিম্পল সাজেও আপনাকে লাগবে অসম্ভব সুন্দর। পুজো প্রায় শেষের দিকে। তবে এই শেষের দুই দিন অর্থাৎ নবমী দশমীতে পুজো জমে বেশি। এবার চলুন এই দুই দিনে কেমন সাজ পোশাক হতে পারে দেখুন।

অষ্টমীতে সাধারণত একটা জমকালো ভাব থাকে। তাই সেই ভাবের সঙ্গে আপনার পোশাকেও থাকা উচিত জমকালো একটা ভাব। একটু গাড় রঙের পোশাক পছন্দ করুন এদিনের জন্য। পুজোর পুরো সময়টা ধরে লাল রঙটা ভালোই রাজত্ব করে। কিন্তু তাই বলে শুধু লাল না রেখে সঙ্গে হলুদ, সাদা, কমলা এসব রঙের একটু ভাড়ি ধরনের শাড়ি পড়তে পারেন। সাথে নেটের ব্লাউজ বা হাতায় ভাড়ি কাজ করা ব্লাউজ পরতে পারেন। থ্রিপিছ বা অন্য ধরনের পোশাকের ক্ষেত্রেও একটু ভাড়ি কাজের পোশাক পড়তে পারেন। পুতিও জড়ির কাজ করা লেহেঙ্গা, গাউন আর তার সঙ্গে মিলিয়ে সাজটাও নিতে পারেন একটু ভাড়ি ধরনের। সঙ্গে গা ভর্তি গয়না পরে বেরিয়ে যেতেই পারেন ঠাকুরদর্শনে।

নবমীর দিন পুরো দিনটাই রাঙিয়ে তুলুন মনোমুগ্ধকর সাজে। সকাল থেকে সবসময় পরিধান করুন ঝাকজমক পোশাক। জর্জেট, কাতান; পুতি, পাথর বা সুতার কাজ করা এমন ভাড়ি শাড়ি আপনাকে অন্যরকম এক পুজোর সাজ দিতে পারে। সঙ্গে স্টাইলিশ ব্লাউজ ও গয়না। রঙের দিক থেকে যেহেতু লালের আধিক্য থাকে পুরো পুজো জুড়েই। তবে নবমীতে হালকা নীল, সাদা, হালকা সবুজ এসব রঙ ও পরতে পারেন। আর অল্প বয়সী মেয়েরা পরতে পারেন পুতি, পাথর বসানো এমনি ঝাকজমকপুর্ন লেহেঙ্গা, থ্রিপিজ। মোদ্দা কথা গর্জিয়াস এক ভাব থাকতে হবে আপনার পোশাকে।

দুর্গোপুজার প্রধান আকর্ষন দশমী। আর দশমীর সাজ মানে আমাদের সবার চোখে ভাসছে লাল পেড়ে সাদা শাড়ি। যেকোনো বয়সের নারীরাই এই একটা দিন বেছে নিতে পারেন লাল সাদা শাড়ি। সঙ্গে লাল ব্লাউজ। তবে যারা একান্তই শাড়ি পরে কমফোর্টেবল না। তারা লালা সাদা সেলায়ার কামিজ। এক্ষেত্রে সাদা জামা, লাল চুরিদার, আর লাল ওড়না বেশি মানানসই মনে হবে। আর চাইলে সিম্পল সাদা লেহেঙ্গা আবার সাদা কুর্তির সাথে জিন্স দিয়েও পরতে পারেন।

ডাউনলোড করুন অনন্যা অ্যাপ